ঢাকা, সোমবার 4 June 2018, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ১৮ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ঈদের আগেই খালেদা জিয়াকে মুক্তি না দিলে গণআন্দোলনে মুক্ত করা হবে

চট্টগ্রাম ব্যুরো : চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপি’র সভাপতি, কেন্দ্রীয় বিএনপি’র সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ শাহাদাত হোসেন বলেছেন, ঈদের আগেই দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিন, অন্যতায় এদেশের ছাত্রজনতাকে সাথে নিয়ে গণআন্দোলনের মাধ্যমে মুক্ত করা হবে। সরকারের শুভবুদ্ধির উদয়  হোক, শান্তিপূর্ণভাবে লক্ষ- কোটি মানুষের প্রিয় নেত্রীকে জনতার মাঝে ফিরিয়ে দিন।  দেশকে ধ্বংশে দিকে ঠেলে দিবেন না।
ডাঃ শাহাদাত হোসেন আরো বলেন, মাদক অভিযানের নামে শান্তিপূর্ণ মানুষদের পাখিরমত গুলী করে হত্যা করার অধিকার কে দিয়েছে? মাদক আমদানির সম্রাটকে জামাই আদরে বিদেশের মাটিতে সরকার পাঠিয়ে দিয়েছে। পক্ষান্তরে মাদকের অভিযোগ এনে বিএনপি-যুবদল-ছাত্রদলের নিরীহ নেতাকর্মীদেরকে ঘরছাড়া করে যাচ্ছে, ইহা কিসের আলামত? আজ দেশে আইনের শাসন নাই। হাইকোর্ট-সুপ্রীমকোর্ট থেকে বেগম খালেদা জিয়াকে বার বার জামিন দেওয়ার পরও সরকার আইনের অজুহাত দেখিয়ে মাসের পর মাস বেগম খালেদা জিয়াকে আটক রেখে ৫ জানুয়ারি বাকশাল মার্কা আরও একটি নির্বাচন করে ক্ষমতায় ঠিকে থাকতে চায়। দেশের গণতন্ত্রিক ইনষ্টিটিউটগুলো ভেঙ্গেচুরে শেষ করে দেওয়া হয়েছে। এইভাবে একটি স্বাধীন সার্ভভৌম দেশ চলতে পারে না। দেশ আজ অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিকভাবে গভীর সংকটে নিমর্জ্জিত। এই সংকট থেকে উত্তোরণের একটি মাত্র পথ খোলা রয়েছে সরকারের কাছে, তা হচ্ছে ঈদের আগে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের পথ সৃষ্টি করে সকল দলের অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের ব্যবস্থা করা। বিএনপি’র চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে নাজিম উদ্দিন রোডের পরিত্যক্ষ কক্ষে আটক রেখে সরকার মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে। যদি বেগম খালেদা জিয়ার অস্বাভাবিক কিছু হয়, তা হলে দেশ জাতি শেখ হাসিনা সরকারকে ক্ষমা করবে না।
তিনি   ২ জুন   শনিবার বিকেল ৩ টায় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল চান্দগাঁও থানা শাখা, পাঁচলাইশ, বায়েজিদ থানা আংশিক ৮ সংসদীয় এলাকার উদ্যোগে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে চান্দগাঁওস্থ সাবেক এমপি শরাফত উল¬াহ বাড়ি সম্মুখস্থ চত্বরে এক বিশাল প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন। সভাপতির বক্তব্যে চট্টগ্রাম নগর বিএনপি’র সাবেক যুগ্ম আহবায়ক এরশাদ উল¬াহ বলেন, সরকার যদি মানুষের মনের ভাষা বুঝতে না পারে তাহলে জনগণের রোষাণলে পড়তে হবে। তখন আর এই অবৈধ সরকার পালানোর পথ খুঁজে পাবে না। এই সরকারের আমলে দেশের অর্থনীতি ধ্বংশ হয়ে গেছে। জনগণের আমানতের টাকা ব্যাংক থেকে সরকারের লুটেরা লুট করে বিদেশে পাচার করেছে। শেয়ার ব্যবসা, ইউপে টু, স্পীক এশিয়া, দেশটিনি, বিভিন্ন এমএলএম নামে-বেনামে সরকারের আত্মীয়রা হাজার হাজার কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এই ব্যাপারে সরকারের কোন মাথা ব্যাথা নাই। পাঁচলাইশ থানা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক মনির আহমেদ চৌধুরী, চান্দগাঁও থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শরীফ উদ্দিন খান, বায়েজিদ থানার সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদের জসিম এর সঞ্চালনায় এক বিশাল প্রতিবাদ সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বিএনপি’র কেন্দ্রীয় শ্রমবিষয়ক সম্পাদক এ.এম. নাজিম উদ্দিন, নগর বিএনপি’র উপদেষ্টা, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলম, ছাত্রদল কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি, জিয়া শিশু-কিশোর ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান এম.এ হাশেম রাজু, নগর বিএনপি’র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আর.ইউ চৌধুরী শাহীন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ