ঢাকা, বুধবার 6 June 2018, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২০ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চাঁদাবাজির মামলায় চট্টগ্রাম ছাত্রলীগ নেতা রনি কারাগারে

চট্টগ্রাম ব্যুরো : সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সেক্রেটারী নুরুল আজম রনিকে চাঁদাবাজির মামলায় কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। গতকাল সোমবার দুপুরে চট্টগ্রামের মুখ্য মহানগর হাকিম মো. ওসমান গনি এ আদেশ দেন।

সূত্রের খবর, গত ৩১ মার্চ চট্টগ্রাম মহানগরীর চকবাজার থানাধীন চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজ ক্যাম্পাসে গিয়ে কলেজের অধ্যক্ষ জাহেদ খানকে মারধর করেন রনি। জাহেদ খানের শরীরে আঘাত করার কথা স্বীকার করে পরে এক বিবৃতিতে এজন্য দুঃখ প্রকাশ করেন রনি। এরপর ৪ এপ্রিল রাতে চকবাজার থানায় রনির বিরুদ্ধে ২০ লাখ টাকার চাঁদা দাবির অভিযোগে মামলা করেন জাহেদ খান। এ মামলায় রনি চার সপ্তাহের অন্তর্বর্তী জামিনে ছিলেন। গত ৭ মে তিনি উচ্চ আদালত থেকে জামিন নেন। মেয়াদ শেষে গতকাল সোমবার মহানগর মুখ্য হাকিম আদালতে হাজির হয়ে আবারও জামিনের আবেদন করলে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

রনির আইনজীবী শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী জানান, উচ্চ আদালত থেকে রনি এক মাসের জামিন নিয়েছিল। আইন অনুসারে ওই সময়ের মধ্যে নিম্ন আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করতে হয়। সোমবার জামিনের আবেদন করা হলে আদালত তা নামঞ্জুর করেন।

নগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (প্রসিকিউশন) কাজী সাহাবুদ্দিন আহমদ জানান, আদালত রনির করা জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। আদেশের পর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজের অধ্যক্ষ জাহেদ খানকে মারধরের কিছুদিন পর স্থানীয় এক কোচিং মালিককে মারধর করেন রনি। রনির মারধরের সেই ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে ফেসবুকে। এরপর ছাত্রলীগের পদ থেকে বহিষ্কার হন রনি। এর আগে ২০১৬ সালের ৭ মে চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মির্জাপুর ইউনিয়নের চারিয়া বোর্ড স্কুল কেন্দ্রের বাইরে থেকে একটি নাইন এমএম পিস্তল ও ১৫ রাউন্ড গুলী এবং একটি সিল ও নগদ ২৬ হাজার টাকাসহ রনিকে গ্রেফতার করে ভ্রাম্যমাণ আদালত। পরে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অপরাধে দায়িত্বপ্রাপ্ত বিচারিক হাকিম হারুন আর রশিদ তাকে দুই বছরের কারাদ- দেন। সেসময় ৫২ দিন পর উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়ে মুক্তি পান রনি। এছাড়া অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় তার বিরুদ্ধে একটি মামলা করে পুলিশ। ওই দুই মামলা ছাড়াও নগরীর এমএ আজিজ আউটার স্টেডিয়ামে সুইমিং পুল নির্মাণবিরোধী আন্দোলনে পুলিশের সাথে সংঘর্ষের ঘটনায়ও তার বিরুদ্ধে মামলা আছে। সবশেষ পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদ শেয়ার করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ায় মানহানির অভিযোগে গত ১৬ মে রনির বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেন নগর ছাত্রলীগের নির্বাহী কমিটির সদস্য তানজিরুল হক চৌধুরী।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ