ঢাকা, বুধবার 6 June 2018, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২০ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

খালেদা জিয়াকে ছাড়া কোনো নির্বাচন জনগণ হতে দেবে না -ড. মোশাররফ

স্টাফ রিপোর্টার: বেগম খালেদা জিয়াকে ছাড়া দেশে কোনো নির্বাচন জনগণ হতে দেবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সিনিয়র সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর পান্থপথে সামারাই কনভেনশন সেন্টারে ড. মোশাররফ ফাউন্ডেশন আয়োজিত ইফতার মাহফিলে বক্তৃতাকালে এইসব কথা বলেন তিনি। এই ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান তিনি।
ড. মোশাররফ বলেন, সরকার মাদক নিয়ন্ত্রণের নামে বিচারবহির্ভূত হত্যাকা- চালাচ্ছে। যা সংবিধান ও মানবাধিকার পরিপন্থী। সরকারের উচ্চপদস্থ এমপি ও নেতারা মাদক আমদানিতে জড়িত। এসব মাদক সম্রাটদের নাম ফাঁস হয়ে যাবার ভয়ে তারা মাদক নিয়ন্ত্রণের নামে চুনোপুটিদের রিমান্ডে না নিয়ে হত্যা করে ফেলছে। তিনি বলেন, সরকারের বাণিজ্য মন্ত্রী বলেছিলেন, রমজানে জিনিসপত্রের দাম বাড়বে না, অথচ দ্রব্যমূল্যের উর্দ্ধগতিতে রমজান মাসে মানুষ সীমাহীন কষ্ট পাচ্ছে। সরকারের কোথাও কোন জবাবদিহীতা নাই, নিয়ন্ত্রণ নেই। যে যা ইচ্ছা করে যাচ্ছে।
ড. মোশাররফ বলেন, সরকার বেগম খালেদা জিয়ার জনপ্রিয়তাকে ভয় পাচ্ছে বলে, তাকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে নির্জন কারাগারে আটক রেখেছে। উচ্চ আদালত বেগম জিয়াকে জামিন দিলেও আইনের মারপ্যাচে তাকে বন্দি রেখেছে। আমি দৃঢ়তার সাথে বলতে চাই, বেগম খালেদা জিয়াকে ছাড়া এদেশে কোনো নির্বাচন জনগণ হতে দেবে না। ড. মোশাররফ বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার জন্য আগামী দিনে কঠোর আন্দোলনে অংশ নিতে নেতাকর্মীদের প্রস্তুত হবার উদাত্ত আহবান জানান।
ইফতার মাহফিলের আগে জনকল্যাণে ড. মোশাররফ ফাউন্ডেশনের উন্নয়ন ও সেবাধর্মী বিভিন্ন কর্মকা-ের একটি প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন করা হয়। ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে কুমিল্লার দাউদকান্দি ও তিতাসসহ বিভিন্ন এলাকায় ২টি কলেজ, ৩টি হাইস্কুল এবং ১টি দাখিল মাদরাসা ও এতিমখানা প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। এইসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এলাকার শিক্ষাব্যবস্থাকে সমৃদ্ধ করেছে। এছাড়াও ফাউন্ডেশন দারিদ্র্যবিমোচন, বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ওষুধ বিতরণ, রিক্সা বিতরণ, বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ, আত্মকর্মসংস্থানের জন্য বৃত্তিমূলক শিক্ষাদানের মাধ্যমে বেকারত্ব দূরীকরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।
ফাউন্ডেশনের সেবার পরিধি আরো বাড়ানোর দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। এই প্রতিষ্ঠানকে আজকের অবস্থানে এগিয়ে নিতে সহযোগিতার জন্য তিনি সকলকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। মিলাদ মাহফিলে দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহর শান্তি এবং সমৃদ্ধির জন্য বিশেষ মুনাজাত করা হয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি’র জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও ফাউন্ডেশনের পরিচালক ড. খন্দকার মারুফ হোসেন ও খন্দকার মাহবুব হোসেন, উদ্যোক্তা সদস্য মোতাহার হোসেন পাটোয়ারী ও মো. দেলোয়ার হোসেন ভূইয়া দুলাল, সদস্য মিঞা মো. মিজানুর রহমান, জসিম উদ্দিন আহমেদ, আবুল হাসেম চেয়ারম্যান, মো. আক্তারুজ্জামান সরকার, নূর মো. সেলিম, রমিজ উদ্দিন লন্ডনী, আজহারুল হক শাহীন, ভিপি শাহাবুদ্দিন ভূইয়া, দাউদকান্দি পৌর কাউন্সিলর মোস্তাক মিয়া, সুমন খন্দকার ও সালাউদ্দিন সরকার, ডা: শাহীদুল হাসান বাবুল, এনামুল হক সফর তালুকদার, বাবুল মোল্লা, শরীফ চৌধুরী, রোমান খন্দকার, আল আমিন সরকার, আসাদুজ্জামান লিমন ও আব্দুল বাসেত প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ