ঢাকা, শুক্রবার 8 June 2018, ২৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২২ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের বরাদ্দ বাড়ছে তিনশ সাত কোটি টাকা

স্পোর্টস রিপোর্টার : যুব ও ক্রীড়াক্ষেত্রে প্রায় তিনশ সাত কোটি টাকা বেড়েছে এবারের বাজেটে। ২০১৮-১৯ নতুন অর্থ বছরে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের পরিচালন ও উন্নয়ন ব্যায়ে বাজেট বরাদ্দ হয়েছে ১৪৯৮ কোটি ১৪ লাখ টাকা। গতকাল বৃস্পতিবার অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত জাতীয় সংসদে এই বাজেট ঘোষণা করেন। এর মধ্যে উন্নয়ন খাতে ৩০৪ কোটি ৫৯ লাখ টাকা এবং পরিচালন খাতে ১১৯৩ কোটি ৫৫ লাখ টাকা ধরা হয়েছে। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে সংশোধিত বাজেটে এর পরিমান ছিল ১১৯০ কোটি ৪৮ লাখ ২৬ হাজার টাকা। এবারের প্রস্তাবিত বাজেট গত বছরের সংশোধিত বাজেটের তুলনায় ৩০৭ কোটি ৬৫ লাখ ৭৪ হাজার টাকা বেশী।এবারের বাজেটে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অধীনে যে সমস্ত প্রকল্প/কর্মসূচী বাস্তবায়ন করা হবে, তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- নীলফামারী ও নেত্রকোনা জেলা স্টেডিয়ামের উন্নয়ন ও রংপুর মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্স নির্মাণ প্রকল্পের জন্য ৩ কোটি ৫৬ লাখ টাকা, কিশোরগঞ্জ জেলার শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম স্টেডিয়াম সংষ্কার উন্নয়ন ও ভৈরব উপজেলায় শহীদ আইভী রহমান স্টেডিয়াম নির্মাণ প্রকল্প খাতে ৪৫ লাখ টাকা, নাটোর ও গাইবান্ধা জেলা সদরে ইনডোর স্টেডিয়াম নির্মাণ প্রকল্পে ৪ কোটি ৩৮ লাখ টাকা, কুমিল্লা শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়াম (কুমিল্লা স্টেডিয়াম) উন্নয়ন ও সুইমিংপুল নির্মাণ প্রকল্পে ৫ কোটি টাকা, চট্টগ্রাম বিভাগীয় সদরে সুইমিংপুল নির্মাণ প্রকল্পে ৪ কোটি ১৪ লাখ টাকা, সিলেট জেলা স্টেডিয়াম ও আবুল মাল আব্দুল মুহিত ক্রীড়া কমপ্লেক্সের অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্পে ৯ কোটি ৫৩ লাখ টাকা প্রস্তাব করা হয়েছ।

এছাড়া উন্নয়ন খাতের অন্যান্য প্রকল্পগুলো হলো শেরপুর শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি স্টেডিয়াম উন্নয়ন এবং ইনডোর স্টেডিয়াম নির্মাণ প্রকল্প, জামালপুরে বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাডভোকেট আব্দুল হাকিম স্টেডিয়াম কমপ্লেক্সের উন্নয়ন, মুন্সীগঞ্জ জেলা স্টেডিয়াম এবং সুইমিংপুলের অধিকতর উন্নয়নসহ ইনডোর স্টেডিয়াম ও টেনিস কোর্ট নির্মাণ, উপজেলা পর্যায়ে মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণ প্রকল্প, তৃণমুল পর্যায়ে ক্রীড়া প্রতিভা অন্বেষন করে নিবিড় প্রশিক্ষণ প্রদান এবং বিকেএসপির বিদ্যমান ক্রীড়া সুবিধাবলীর অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্প এবং বিকেএসপির আঞ্চলিক কেন্দ্রের উন্নয়ন প্রকল্প।

এছাড়াও এই বাজেটের আওতায় মিরপুর সৈয়দ নজরুল ইসলাম সুইমিং কমপ্লেক্সের অধিকতর উন্নয়নের জন্য ৬ কোটি ৬৩ লাখ টাকা ও ঢাকাস্থ রমনা ও রাজশাহী জাফর ইমাম টেনিস কমপ্লেক্সের সংষ্কার ও উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য ৬ কোটি ৯০ লাখ টাকা প্রস্তাব করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ