ঢাকা, সোমবার 11 June 2018, ২৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৫ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

এবার দ্বন্দ্বে ইমরান খানের দুই সাবেক স্ত্রী

১০ জুন, দ্য নিউজ : লড়াই ভালোই জমে উঠেছে পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার ও রাজনীতিক ইমরান খানের সাবেক স্ত্রী রেহাম খানের লেখা বই নিয়ে। বইটি প্রকাশের আগেই এর বিরুদ্ধে উঠেছে আপত্তি। অনেকেই অভিযোগ করেছেন বইটিতে উদ্দেশ্যমূলকভাবে বেশ কিছু খ্যাতিমান ব্যক্তির চরিত্রহরণ বা মানহানি করা হয়েছে। আর ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই ইনসাফ (পিটিআই) তো বলেছে, আসন্ন জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে উদ্দেশ্যমূলকভাবে তাদের দলকে বিতর্কীত করতে বইটি লেখা হয়েছে।

ইমরান খানের সাথে বিচ্ছেদ হয়ে যাওয়ার কয়েক মাস পর তার দ্বিতীয় স্ত্রী রেহাম খান আত্মজীবনীমূলক বই লিখেছেন। বইটি এখনো প্রকাশিত হয়নি, তার আগেই ঝড় তুলেছে পাকিস্তানের রাজনীতিতে। অনলাইনে একজন হ্যাকার বইয়ের পাণ্ডুলিপির কিছু অংশ ফাঁস করে দেয়ার পরই শুরু হয়েছে তোলপাড়। এবার সেই ধারায় যোগ দিয়েছেন ইমরান খানের আরেক সাবেক স্ত্রী(প্রথম) জেমিমা গোল্ডস্মিথ।

ইমরান-জেমিমার এক সন্তানকে নিয়ে রেহাম খানের বইতে মানহানিকর তথ্য রয়েছে উল্লেখ করে বইটির বিরুদ্ধে হুশিয়ারি দিয়েছেন জেমিমা। জেমিমা বলেছেন, আমার সন্তানকে নিয়ে অপমানজনক তথ্য রয়েছে বইটিতে। আমি কোন কিছু করতে ভয় পাবো না। টুইটারে তিনি বলেছেন, আমার সন্তানকে নিয়ে কেউ অপমান সূচক মন্তব্য করলে তা সহ্য করবো না।

টুইটারে বইটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার হুমকি দিয়েছেন জেমিমা। বলেছেন, মানহানি ও গোপনীয়তা লঙ্ঘনের জন্য আমার ১৬ বছরের সন্তানের পক্ষে মামলা করবো। তিনি রেহামের এই কর্মকা-কে ইহুদীবাদীদের ষড়যন্ত্র তত্ত্ব হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। প্রসঙ্গত বর্তমানে সুলাইমান খানের বয়স ১৯, তবে বইটিতে তার প্রসঙ্গে যে সময়ের কথা বলা হয়েছে, তখন তার বয়স ছিলো ১৬ বছর।

জেমিমা আরো বলেন, রেহাম খানের বইটি ব্রিটেনে প্রকাশি হলে এর বিরুদ্ধে তার সন্তান সুলাইমান ইসা খান যদি মামলা করে সেই মামলা পরিচালনার খরচ যোগাবেন তিনি।

১৯৯৫ সালে ইমরান খানের সাথে বিয়ে হয় ব্রিটিশ সাংবাদিক জেমিমা গোল্ডস্মিথের। নয় বছর টিকে ছিলো তার সংসার। পাকিস্তানের রাজনৈতিক উত্তপ্ত পরিস্থিতিতে দেশটিতে বসবাস করার সম্ভব নয় উল্লেখ করে জেমিমা লন্ডনে ফিরে যান। তাদের সংসারে রয়েছে দুটি পুত্র সন্তান। আর জেমিমা খানের সাথে ইমরান খানের বিয়ে হয় ২০১৫ সালে, এক বছর পূর্তির আগেই ভেঙে যায় সেই সংসার।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ