ঢাকা, সোমবার 11 June 2018, ২৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৫ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

পুকুরে ডুবে তিন ভাই-বোনের মর্মান্তিক মৃত্যু

ফরিদপুর সংবাদদাতা : ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার নুরুল্লাগঞ্জ ইউনিয়নের কাঁঠালবাড়িয়া গ্রামে পানিতে ডুবে তিন ভাই-বোনের মৃত্যু হয়েছে।
গতকাল রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। মৃত মিম (৪), জিমি (৭) ও সাজ্জাদ (৫) চাচাতো ভাই-বোন।
মিম কাঁঠালবাড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, জিমি ও সাজ্জাদ সদরপুর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়ালেখা করতো বলে জানা গেছে।
পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, ভাঙ্গা উপজেলার নুরুল্লাগঞ্জ ইউনিয়নের কাঁঠালবাড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা বাশার মাতুব্বর এর মেয়ে মিম (৪) ও বাশার মাতুব্বরের ছোট ভাই জামের আলী মাতুব্বরের মেয়ে জিমি (৭) ও ছেলে সাজ্জাদ (৫) বাড়ির পাশে পুকুরে গোসল করতে নামে। এক পর্যায়ে মিম পানিতে ডুবে গেলে জিমি ও সাজ্জাদ তাকে তুলতে গেলে তিনজনই পানিতে ডুবে যায়। পরে বাড়ির লোকজন পুকুর থেকে তাদের তিনজনকে উদ্ধার করে সদরপুরর আটরশি হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। তিনজনই আপন চাচাতো ভাই-বোন।
মিমের চাচা এনামুল মাতুব্বর জানান, দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মিম, জিমি ও সাজ্জাদ বাড়ির পাশে পুকুরে গোসল করতে নামলে পানিতে ডুবে তাদের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। জিমি ও সাজ্জাদকে নিয়ে তার বাবা জামের আলী সদরপুরে বসবাস করেন। রোববার কাঁঠালবাড়িয়া মসজিদে পরিবারের পক্ষ থেকে ইফতার মাহফিলের আয়োজন করেন জামের আলী মাতুব্বর ও তার ভাই বাশার মাতুব্বর। ইফতার মাহফিলের কারণে শনিবার সদরপুর থেকে কাঁঠালবাড়িয়া গ্রামের বাড়িতে আসেন জামের আলী। বাশার মাতুব্বর কাঁঠালবাড়িয়া গ্রামের বাড়িতেই বসবাস করেন।
ভাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী সাইদুর রহমান বলেন, আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ঘটনাটি খুবই মর্মান্তিক।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ