ঢাকা, সোমবার 11 June 2018, ২৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৫ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

পবিত্র রমজান এবাদত বন্দেগী ও আত্মশুদ্ধির মাস

চকরিয়া সমিতি চট্টগ্রাম-এর উদ্যোগে রমজানের তাৎপর্য শীর্ষক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল ৮ জুন জুমাবার বিকাল ৪টায় নগরীর স্মরণীকা কমিউনিটি সেন্টারে চকরিয়া সমিতি চট্টগ্রাম এর সভাপতি কমরু উদ্দিন আহমদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) মোমিনুর রশিদ আমিন প্রধান অতিথি,বান্দরবন এর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ আজিজুল হক,সন্দীপ এর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ নুরুল হুদা ও চট্টগ্রাম জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ ওমর ফারুক বিশেষ অতিথি এবং বায়তুশ শরফ আদর্শ কামিল (অনার্স-মাস্টার্স) মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল ড. মাওলানা সাইয়্যেদ মোহাম্মদ আবু নোমান প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য পেশ করেন। সমিতির সাধারণ সম্পাদক এম হামিদ হোছাইন ও যুগ্ম সম্পাদক এবং ইফতার মাহফিল উদযাপন কমিটির আহবায়ক আলহাজ¦ হামিদ হোছাইন এর সঞ্চালনায় অন্যান্য মধ্যে বক্তব্য রাখেন সমিতির প্রধান উপদেষ্টা আনোয়ার হোসেন কন্ট্রাকটর, সালাহ উদ্দিন আহমদ সি.আই.পি,চকরিয়া উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান রেজাউল করিম, আতাউল হক, হাফেজ মোহাম্মদ আমান উল্লাহ,সমিতির সাবেক সভাপতি রহিম উল্লাহ,আলহাজ্ব সেতারা গাফফার চৌধুরী,সমিতির সহ সভাপতি অধ্যক্ষ ড. মোহাম্মদ সানা উল্লাহ প্রমূখ। আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মোমিনুর রশিদ আমিন বলেছেন- ভালো সমাজ কর্মের মাধ্যমে চকরিয়া সমিতি নিজেদের অবস্থান তৈরি করে দেশ ও জাতির কাছে পরিচিতি লাভ করেছে। এটি এমনিতেই সম্ভব হয়নি। কিছু গুণী মানুষের অক্লান্ত পরিশ্রমে এই সংগঠন সেবামূলক প্রতিষ্ঠান হিসেবে মানুষের অন্তরে স্থান করে নিয়েছে। তিনি চকরিয়া সমিতির এই মহতি আয়োজনে উপস্থিত হতে পেরে নিজেকে ধন্য বলে উল্লেখ করে আরো বলেছেন পবিত্র রমজান এবাদত বন্দেগী ও আত্মশুদ্ধির মাস। তাই এ মাসে নিজেদের কে পরিশুদ্ধ করে মুমিন হিসেবে নিজেকে গড়ে তোলার আহবান জানান। তিনি কক্সবাজারের কৃতী সন্তান বিচারপতি আমিরুল কবীর চৌধুরীর জীবনকে সমাজ কর্মের জন্য নিবেদিত উল্লেখ করে তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেছেন। প্রধান আলোচক ড. অধ্যক্ষ সাইয়্যেদ আবু নোমান বলেছেন- মাহে রমজান আমাদের জন্য মহা মূল্যবান। এই মাসের এবাদত আল্লাহর কাছে বেশী পছন্দনীয়। এই রমজান মাসে পবিত্র আল কুরআন নাজিল হয়। রমজান মাসে অন্যান্য নবীদের উপরও আসমানী কিতাব নাজিল হয়। রোজা রেখে মানবজাতি নিজেদের পাপ মোচন করতে না পারাটা বড়ই ভাগ্যহীনতার পরিচয়। কারণ রোজার এবাদতের পুরস্কার আল্লাহ তায়ালা নিজেই দিবেন বলে ওয়াদা করেছেন। তিনি মাহে রমজানের শিক্ষা ও তাৎপর্যের আলোকে নিজেদের প্রতিটি ক্ষেত্রে কাজে লাগানোর আহবান জানান এবং মাদকমুক্ত দেশ ও সমাজ গঠনের উপর গুরুত্বারোপ করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ