ঢাকা, মঙ্গলবার 12 June 2018, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৬ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সাপাহারে ঘনঘন লোডশেডিং রোজাদারসহ উপজেলাবাসী অতিষ্ঠ

সাপাহার (নওগাঁ) সংবাদদাতা : নওগাঁর সাপাহারে  বিদ্যুৎ আসা যাওয়ার মাত্রা অতিরিক্ত হওয়ায় পবিত্র মাহে রমযান মাসে ধর্মপ্রাণ মুসলিমসহ উপজেলার সর্বসাধারণ মানুষকে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে। পবিত্র রমযান মাসে এ উপজেলার বিদ্যুৎ সেবার মান যতটা আশা করেছিল তা না হওয়ায় ধর্মপ্রাণ মুসলমান সহ উপজেলাবাসী হতাশ হয়েছে। বিদ্যুৎ এর অসহনীয় লোডশেডিং এ অতিষ্ট হয়ে উঠেছে উপজেলাবাসী।
রোজাদারদের আশা ছিল বিদ্যুৎ এর লোডশেডিং থাকলেও হয়তো ইফতার,তারাবীর নামাযের সময় বিদ্যুৎ সেবার মান সহনীয় থাকবে। কিন্তু দ্যুতের ঘন ঘন আসা যাওয়ায় থাকে বিদ্যুৎ  সেবার মান।
রমযানের শুরু থেকেই সাপাহারে চলতেই থাকে ভয়াবহ   লোডশেডিং। চলছে বিদ্যুৎ এর ভয়াবহ লোডশেডিং। ইফতারের সময় যখন মুসল্লিরা ইফতার নিয়ে বসে, তারাবির নামাযের সময় যখন বিদ্যুৎ এর আসা যাওয়া শুরু হয় তখন তা সহ্য করার মত নয়। এই প্রচন্ড তাপদাহ গরমের দিনে সারাদিন রোজা রাখার পর তারাবির নামাযের সময় বিদ্যুৎ না থাকায় চরম কষ্ট পোহাতে হচ্ছে রোজাদার মুসল্লিদের,দিনে রাতে কত বার যে লোডশেডিং হয় তা হয়ত বিদ্যুৎ কতৃপক্ষও জানে না বলে অভিযোগ করেছে উপজেলা বাসী। পবিত্র রমজান মাসে রোজা সুষ্ঠ ভাবে পালন করার জন্য  একটু হলেও বিদ্যুৎ সরবরাহের উন্নতি ঘটানোর জন্য ধর্মপ্রাণ মুসলিরা বিদ্যুৎ কতৃপক্ষের কাছে আকুল আবেদন জানিয়েছেন।
বিদ্যুতের ঘন ঘন লোডশেডিংয়ের কারণে ব্যবস্যা বাণিজ্যে ধ্বস, ডিজিটালাষ্ট ও ব্যাংক,বীমা বিভিন্ন কলকারখানা, ব্যবস্যা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বিপনী বিতান, কম্পিউটার সাইবার ক্যাফগুলো ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে। এতে সাধারণ জনগণও ব্যাপক ক্ষতির শিকার হচ্ছে।
উপজেলাবাসী আক্ষেপ করে প্রশ্ন করেন এ সময় সেচ ও ইরিগেশন মৌসম নয় তাহলে এত ঘনঘন লোডশেডিং কেন। তার সাথে বিদ্যুৎ সেবার মান সহনীয় রাখার দাবি জানিয়েছে তারা।
উপজেলার লাগামহীন লোডশেডিং এর বিষয়ে সাপাহার পল্লীবিদ্যুৎ কতৃপক্ষের সাথে  কথা হলে তারা বলেন বজ্রপাতে লাইনের সমস্যা হয়েছিল আমরা সে সমস্যা ধরতে পেরেছি এবং তা সমাধানও করেছি এখন লোডশেডিং নেই। আমাদের জনবল কম হওয়া সত্বেও অতিদ্রুত সমস্যা সমাধানের চেষ্টা চালিয়ে তা সমাধান করেছি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ