ঢাকা, মঙ্গলবার 12 June 2018, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৬ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ব্যাংক লুটপাটের কথা

‘ব্যাংক লুটেরাদের পক্ষে অর্থমন্ত্রী’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন মুদ্রিত হয়েছে প্রথম আলো পত্রিকায়। ১১ জুন মুদ্রিত প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, ঘুষ-দুর্নীতি, অর্থ পাচার ও অপশাসনের প্রসঙ্গ ছাড়িয়ে জাতীয় সংসদে ১০ জুন সব সমালোচনা এসে ঠেকে ব্যাংক খাতের লুটপাটে। সংসদে চলতি ২০১৭-১৮ অর্থবছরের সম্পূরক বাজেটের ওপর আলোচনাটি রোববার এক পর্যায়ে রূপ নেয় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ও ব্যাংক খাতের সমালোচনায়। বিরোধী দল জাতীয় পার্টি, স্বতন্ত্র, এমনকি সরকারি দল আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্যরাও এই সমালোচনায় অংশ নেন। তারা বলেছেন, আর্থিক খাতে শৃঙ্খলা নেই, ব্যাংক খাত প্রায় শেষ হয়ে গেছে। আর অর্থমন্ত্রী যে ব্যাংক খাতের লুটপাটকারীদের পক্ষে, প্রস্তাবিত ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটেই তিনি সেই প্রমাণ দিয়েছেন। প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশনের (এফবিবিসিআই) প্রতিক্রিয়ার কথা উল্লেখ করে সরকারি দলের সদস্য আলী আশরাফ বলেন, ব্যাংক খাতে লুটপাটকারীদের ধরা হলে মানুষের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে, সুশাসনও নিশ্চিত হবে। অর্থমন্ত্রীকে দৃঢ়তার সঙ্গে এগুলো করতে হবে। ব্যাংক খাতকে শৃঙ্খলায় আনতে না পারলে আর্থিক খাত ভেঙ্গে পড়বে বলে আশংকা প্রকাশ করেন আলী আশরাফ। তিনি মনে করেন, ব্যাংক খাতে শৃঙ্খলা না এলে বিদেশি বিনিয়োগও আকৃষ্ট হবে না।
জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশদি বলেন, এফবিসিসিআই ব্যাংক ডাকাতদের শাস্তি চায়। আর অর্থমন্ত্রী ওই ডাকাতদেরই সুযোগ দিলেন। অর্থমন্ত্রীর উদ্দেশে ফিরোজ রশিদ বলেন, ‘আপনি অর্থমন্ত্রী আছেন কি ডাকাতদের সুরক্ষা দেওয়ার জন্য, না জনগণকে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য? ব্যাংকওয়ালারা কি আপনাকে ভোট দেবে? আপনি সাধারণ জনগণের দিকে তাকালেন না।’ অর্থমন্ত্রীর উদ্দেশে তিনি আরো বলেন, ‘ব্যাংক খেলাপি কারা, আপনি জানেন না? ৯৮ হাজার কোটি টাকা কারা নিয়েছে, জানেন না? সোনালী, ফারমার্স, রূপালি ব্যাংক লুট হলো, জনগণ কি বিচার পেল? ফারমার্স ব্যাংক কেন নিলামে তোলা হলো না? অথচ মাত্র ২৪ হাজার টাকার জন্য একজন কৃষককে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়।
ব্যাংক লুটপাটের ঘটনায় দেশের মানুষ ক্ষুব্ধ। এবার সংসদেও বিষয়টি নিয়ে স্পষ্টভাবে আলোচনা হলো। কিন্তু প্রশ্ন জাগে, ব্যাংক লুটপাট বন্ধ হবে কি? লুটেরাদের বিচার হবে কী? এ ক্ষেত্রে ন্যায়ের পথে চলতে সরকারের কোন অসুবিধা আছে কী?

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ