ঢাকা, বুধবার 13 June 2018, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৭ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

পৌর মেয়র ও সহকারী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে ঠিকাদারদের সংবাদ সম্মেলন

গোমস্তাপুর (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) সংবাদদাতা: চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর পৌর মেয়র তারিক আহমদ ও সহকারী প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) আবু সায়েমের বিরুদ্ধে টেন্ডারে অনিয়ম, দূর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেছে স্থানীয় ঠিকাদাররা। শনিবার দুপুরে উপজেলা প্রেসক্লাবে রহনপুর ঠিকাদার সমিতি আয়োজিত এ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সমিতির আহবায়ক শওকাত আলীর পক্ষে সদস্য মতিউর রহমান খান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন এনায়েত করিম তোকি, মশিউর রহমান মহব্বত, আব্দুল গনি, ওয়াসিকুল এলাহী বাবলু, ওয়হিদুজ্জামান অনি, আমির আলী., আসলাম আলী, এনামুল হক, তৌহিদুজ্জামান বাবু, মেহেদি হাসান, সাইদুর রহমান, শহিদুল ইসলাম বাবলু, তৌহিদ সহ  ঠিকাদারবৃন্দ। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের অর্থায়নে বাস্তবায়িত জলবায়ু পরিবর্তন প্রকল্পের ৪টি কাজ কোন প্রকার দরপত্র আহবান ছাড়াই ও স্থানীয় ঠিকাদারদের অবহিত না করে গত ১৯ এপ্রিল  ২টি ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানকে কার্যাদেশ প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া এ কাজগুলোর দরপত্র আহবানের বিষয়টি জেলার অন্যান্য ঠিকাদাররাও অবহিত নন বলে সংবাদ সম্মেলনে জানান হয়। সংবাদ সম্মেলনে আরও জানান হয় গত ২০১৬-১৭ অর্থবছরে  রহনপুর পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের একটি ড্রেন নির্মাণ না করেই সম্পূর্ণ বিলের অর্থ সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারকে পরিশোধক করা হয়। যা পরে মেয়র ও সহকারী প্রকৌশলী ওই অর্থ ভাগাভাগি করে নেন বলে সংবাদ সম্মেলনে জানান হয়। এছাড়া গত ২০১৬-১৭ ও চলতি ২০১৭-১৮ অর্থবছরে এডিপির বরাদ্দের প্রায় ৭০% অর্থ ভূয়া কোটেশনের মাধ্যমে লোপাট করা হয়েছে। কোটেশন গুলোতে যে কাজ ৫-১০ হাজার টাকায় হবে সে কাজ প্রতিটির কোটেশন বিল প্রায় ৫ লক্ষ টাকা করে দেখান হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয় শেষ হতে যাওয়া চলতি অর্থবছরে কোন উন্নয়নমূলক কাজের দরপত্র  আহ্বান না করে গোপনে কোটেশনের  মাধ্যমে অর্থ লুট করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ