ঢাকা, বুধবার 13 June 2018, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৭ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

প্রান্তিক জনগোষ্ঠী আর্থিক দৈন্যতার কারণেই ঈদের আনন্দ পুরোপুরি ভোগ করতে পারেন না ----লস্কর মোহাম্মদ তসলিম

গতকাল বুধবার রাজধানীর একটি মিলনায়তনে রিক্সা-ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন রমনা থানা আয়োজিত শ্রমিকদের মধ্যে ঈদ সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক দক লস্কর মোহাম্মদ তসলিম

বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লস্কর মোহাম্মদ তসলিম বলেছেন, ঈদ মানেই আনন্দ হলেও আমাদের দেশের প্রান্তিক জনগোষ্ঠী আর্থিক দৈন্যতার কারণেই ঈদের আনন্দ পুরোপুরি ভোগ করতে পারেন না। বিশেষ করে শ্রমিক শ্রেণির মানুষেরাই এই সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়ে থাকেন। তাই দুঃস্থ শ্রমিকদের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগী করার জন্যই আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস। তিনি দুর্দশাগ্রস্ত শ্রমিকদের দুর্দশা লাঘবে সমাজের সক্ষম ও বিত্তবানদের প্রতি আহ্বান জানান।

গতকাল বুধবার রাজধানীর একটি মিলনায়তনে রিক্সা-ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন রমনা থানা আয়োজিত শ্রমিকদের মধ্যে ঈদ সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ইউনিয়ন সভাপতি মঞ্জুরুল আলমের  সভাপতিত্বে ও শ্রমিক নেতা আমিনুল ইসলামের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শ্রমিক নেতা হারুনুর রশীদ ও কবির আহমদ প্রমুখ।

লস্কর তসলিম বলেন, শ্রমিক সমাজ জাতীয় ও সমাজিক উন্নয়নে অসামান্য অবদান রাখলেও তারা আজও অধিকার বঞ্চিত। তারা হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রম করলেও তাদেরকে যথাযথ পারিশ্রমিক প্রদান করা হয় না। ফলে তাদেরকে প্রায় ক্ষেত্রেই মানবেতর জীবন যাপন  করতে হয়। মূলত ন্যায়-ইনসাফভিত্তিক ইসলামী শ্রমনীতি প্রতিষ্ঠিত না থাকার কারণেই দেশের শ্রমিক সমাজ আজ অধিকার হারা। হাদিস শরীফে শ্রমিকদেরকে আল্লাহর বন্ধু হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। ইসলাম শ্রমিকদের গায়ের ঘাম শুকানোর আগেই তাদের পারিশ্রমিক পরিশোধ করার নির্দেশ দিয়েছে। তাই শ্রমিকদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় ইসলামী শ্রমনীতি অনুসরণের কোন বিকল্প নেই। তিনি ইসলামী শ্রমনীতি প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে শ্রমিক সমাজকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান। তিনি বলেন, শ্রমিক সমাজ শুধু অধিকার বঞ্চিতই নয় বরং বরাবরই জুলুম-নির্যাতনের স্বীকার হচ্ছেন। সরকার প্রতিহিংসা চরিতার্থ ভিন্নমতের শ্রমিকদের প্রতি জুলুম-নির্যতন চালাচ্ছে।

 বিভিন্ন সময় তাদেরকে মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত অভিযোগে গ্রেফতার করে জুলুম-নির্যাতন চালানো হয়েছে। সরকারের সেই জুলুম-নির্যাতনের ধারাবাহিকতায় পবিত্র মাহে রমজান শুরুর প্রাক্কালে রাজধানীর মিরপুর এলাকা থেকে সাংগঠনিক বৈঠক চলাকালে বাংলাদেশ শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ও বর্ষীয়ান শ্রমিক নেতা অধ্যাাপক হারুন অর রশীদ সহ রিক্সা শ্রমিক ঐক্য পরিষদের ৪০ নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করে পবিত্র রমজান মাসে তাদের ওপর জুলুম-নির্যাতন চালানো হচ্ছে। তিনি শ্রমিক নির্যাতনের পথ পরিহার করে অধ্যাপক হারুন অর রশীদসহ আটক রিক্সাশ্রমিক ফেডারেশনের নেতাকর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তি দিতে সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান। প্রেস বিজ্ঞপ্তি। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ