ঢাকা, শুক্রবার 15 June 2018, ১ আষাঢ় ১৪২৫, ২৯ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আজ সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন স্পেনের মুখোমুখি পর্তুগাল 

স্পোর্টস রিপোর্টার : বিশ্বকাপ ফুটবলে ‘বি’ গ্রুপের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আজ মাঠে নামছে ২০১০ এর বিশ্বকাপ জয়ী স্পেন। দলটির প্রতিপক্ষ ইউরো চ্যাম্পিয়ন পর্তগাল। সোচি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত ১২ ম্যাচটি শুরু হবে। পর্তুগালের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরুর ঠিক আগ একটু সমস্যায় পড়েছে স্পেন। কারণ  মাঠে নামার আগেই কোচ জুলেন লোপেতেগুইকে বরখাস্ত করেছে দলটি। তার পরও দলটিকে নিয়ে শংকা এতটুকু কমেনি পর্তুগাল শিবিরে। দলের প্লে মেকার বর্নার্ডো সিলভাও তাই মনে করেন। স্পেন ফুটবল ফেডারেশনকে না জানিয়ে রিয়াল মাদ্রিদের সাথে চুক্তি করায় বরখাস্ত হয়েছেন কোচ হুলেন লোপেতেগুই। তবে তার জায়গায় স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন সাবেক স্পেন ও মাদ্রিদ কিংবদন্তী ফার্নান্দো হিয়েরো। কিন্তু হঠাৎ করে নতুন কোচ, নতুন ফরমেশন। দলের খেলোয়াড়েরা পারবে তো নতুন এই কোচের সাথে নিজেদের মানিয়ে বিশ্বকাপে ভাল কিছু উপহার দিতে? অনেকে বলছেন, বিশ্বকাপের ঠিক আগমুহূর্তে এরকম বাজে সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত হয়নি স্পেন বোর্ডের। কেউবা আবার লোপেতেগুইকে দোষী করছেন এমন অপেশাদার আচরণের জন্য। তবে ফরাসি স্ট্রাইকার কাইলিয়ান এমবাপে মনে করেন, কোচ কান্ডে হঠাৎ ঝড়ের মুখে পড়লেও স্পেনের তেমন কোন সমস্যা হবে না। তার মতে, এই বিশ্বকাপে এখনও ফেবারিটই আছে ২০১০ বিশ্বজয়ী দল স্পেন। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে এমবাপে বলেন,‘তারা এখনও ফেভারিট। কেননা এরকম বড় আসরে শিরোপা জেতার অভিজ্ঞতা তাদের আছে। আমাদের প্রস্তুতির সময় আমরাও এই বিষয়টি নিয়ে কিছুক্ষণ নিজেদের মাঝে আলাপ-আলোচনা করেছি। তবে আমি মনে করি, এগুলো শুধু মাঠের বাইরেই, মাঠের ভিতরে সব আগের মতই থাকবে। তারাও মাঠে জিততে চায়, আর তারা আগের মতই ক্ষুধার্থ থাকবে।’পর্তুগালের বিপক্ষে গ্রুপের প্রথম ম্যাচে স্পেনের প্রধান কোচের দায়িত্ব পালন করবেন নতুন কোচ ফারমান্ডো  হিয়েরো। এদিকে লোপেতেগুইকে দলে রাখার জন্য অধিনায়ক সার্জিও রামোসের নেতৃত্বাধীন খেলোয়াড়রা প্রচেস্টা চালিয়েছে বলে গণমাধ্যমের রিপোর্টে বলা হয়েছে। এতে কোচের অপসারণে দলের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দিতে পারে বলেও খবর বেরিয়েছে। ফলে চার বছর আগে ব্রাজিল বিশ্বকাপে ব্যর্থ হবার পর ফের ঘুরে দাঁড়ানো স্পেনের শিরোপা ফিরে পাবার প্রচেস্টা বাধাগ্রস্ত হবে। এদিকে স্পেনের কোচের পরিবর্তনের পরও দলটিতে মান সম্পন্ন  অনেক খেলোয়াড়  রয়েছে বলে মনে করেন সিলভা। তাই দলটি তাদের জন্য এখনো বড় হুমকি উল্লেখ করে সিলভা এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন,‘ কৌশলগত দিক থেকে স্পেন বিশ্ব সেরা। বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদের খেলোয়াড় নিয়ে সাজানো হয়েছে স্পেনের মধ্যমাঠ। সুতরাং আজকের  ম্যাচে তারাই ফেভারিট। দলের অধিকাংশ খেলোয়াড়ই বিশ্বকাপ অথবা ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নের খেতাব জয়ী। তবে আমাদের দলটিও বেশ ভাল। সব সময়ের মত আমরা শিরোপা জয়ের চেস্টা অব্যাহত রাখব। স্পেনের বিপক্ষে জয় পেতে হলে আমাদের মানষিকভাবেও শক্তিশালী হতে হবে। ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডোকেও তার সেরাটা দিতে হবে। সেই সঙ্গে প্রয়োজন হব ভাগ্যদেবীর সহায়তা।’ দলের তারকা ফুটবলার ৫ বারের ব্যালন ডিঅঁর খেতাব বিজীয় রোনাল্ডো প্রসঙ্গে সিলভা বলেন, ‘তিনি এমন এক খেলোয়াড় যিনি ৫ বার ব্যালন ডিঁঅর ও ৫টি চ্যাম্পিয়ন্স লীগের খেতাব জিতেছেন। দশ বছর ধরে তিনি প্রতিটি মৌসুমে ধারাবাহিকভাবে ৪০টির অধিক গোল করে আসছেন।’ ২০১০ বিশ্বকাপ জয়ী স্পেন যদিও আগের অবস্থায় নেই।  তবে সার্জিও  রামোস, ইস্কো এবং আন্দ্রেস ইনিয়েস্তার  মত খেলোয়াড়রা থাকায় এখনো বিশ্বের অন্যতম আতঙ্কের দল স্পেন। যদিও ২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপে তারা  গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিয়েছিল। তবে এবার বছাইপর্বে একচেটিয়া প্রাধান্য বিস্তার করেই রাশিয়ার টিকিট নিয়েছে স্পেন। একটি ম্যাচেও হারেনি তারা। বাছাইপর্বের ১০ ম্যাচের ৯টিতে জয় ও একটিতে ড্র করেছে স্পেন। তাদের দাপটের কারণেই এবারের বিশ্বকাপে অংশ নিতে ব্যার্থ হয়েছে চারবারের শিরোপা জয়ী ইতালী। এরই মধ্যে দল থেকে বরখাস্ত হওয়া স্প্যানিশ কোচ লোপেতেগুই বলেন,‘ এই দলটি অসাধারণ। আশা করি তারা বিশ্বকাপ শিরোপা জয় করতে পারবে।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ