ঢাকা, মঙ্গলবার 19 June 2018, ৫ আষাঢ় ১৪২৫, ৪ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজর
Online Edition

ধানের শীষের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক শওকত হোসেন গ্রেফতার

গাজীপুর সংবাদদাতা : গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের ধানের শীষ প্রতীকে মেয়র পদপ্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা হাসান উদ্দিন সরকারের কাশিমপুর অঞ্চলের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক সাবেক কাশিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান শওকত হোসেন সরকারকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।
গাজীপুর সিটি নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকের মিডিয়া সেলের প্রধান সমন্বয়কারী ডা. মাজহারুল আলম জানান, সাবেক কাশিমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গাজীপুর জেলা বিএনপির সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদক শওকত হোসেন সরকার সস্ত্রীক ওমরা হজ্ব পালন শেষে সৌদী আরব থেকে গত বৃহস্পতিবার রাত আড়াইটায় হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন। তিনি বিমান বন্দর থেকে বের হওয়ার পথে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ তাকে আটক করে মিন্টু রোডের ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে যায়। সেখানে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে একদিন পর বাড্ডা থানার একটি রাজনৈতিক মামলায় আদালতে তোলা হয়। তার আইনজীবীরা জামিনের আবেদন করলে আদালত জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠান। শওকত হোসেন সরকার বর্তমানে সব মামলায় জামিনে আছেন। নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে তাকে উদ্দেশ্যেমূলকভাবে গ্রেফতার করা হয়েছে। কাশিমপুর তথা গাজীপুর মহানগরিতে শওকত হোসেন সরকারের ব্যাপক জনপ্রিয়তা রয়েছে। কাশিমপুর ইউনিয়ন বিলুপ্ত করে সিটি করপোরেশনে অন্তর্ভূক্ত হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি ইউনিয়ন পরিষদটির পর পর দুই বার চেয়ারম্যান ছিলেন। এর আগে তার পিতা, দাদা তথা পরিবারের সদস্যরা ইউনিয়নটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন।
এদিকে শওকত হোসেন সরকারকে গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন গাজীপুর সিটি নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকে ২০ দলীয় জোট মেয়রপ্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা হাসান উদ্দিন সরকার, নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক গাজীপুর জেলা বিএনপির সভাপতি ফজলুল হক মিলন, সাধারণ সম্পাদক কাজী সাইয়েদুল আলম বাবুলসহ জেলা বিএনপি নেতারা। নেতৃবৃন্দ ঈদের দুদিন আগে গাজীপুর জেল গেট থেকে ৬ নেতাকর্মীকে পুনরায় গ্রেফতারেরও নিন্দা জানান। গত ৬ মে নির্বাচন স্থাগিতের দিন বিএনপির মেয়রপ্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকারের বাস ভবনের সামনে থেকে ১২ জনের সাথে এই ৬ জনকেও গ্রেফতার করা হয়েছিল। তাদের মধ্যে আব্দুল কাইয়ুম, মোশারফ গাজী ও আলাউদ্দিনকে গত ১২ জুন এবং ফরিদ আহমেদ, শফিউল্লাহ খান বকুল ও আব্দুর রশিদকে ১৩ জুন গাজীপুর জেল থেকে বের হওয়ার সময় জেল গেটেই গ্রেফতার করা হয়। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে শওকত হোসেন সরকারসহ গাজীপুর সিটির ২০ দলীয় জোটের সকল নেতাকর্মীর নিঃশর্ত মুক্তি দিয়ে নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত করার দাবি জানান।
এদিকে শওকত হোসেন সরকারের অনুপস্থিাতিতে কাশিমপুর অঞ্চলে নির্বাচনী ঝুঁকি মোকাবেলার এক প্রস্তুতি সভা রোববার মেয়রপ্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকারের বাসভবনে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় কাশিমপুর অঞ্চলের বিএনপি নেতারা উপস্থিত ছিলেন। সভায় কাশিমপুর বিএনপি নেতারা দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করে বলেন, আমাদের নেতা গ্রেফতার হওয়ায় আমাদের জনসমর্থন আরো বেড়েছে। আমরা আরো বেশি ভোটে বিজয়ী হবো। শওকত চেয়ারম্যানকে জেলে বন্ধী রেখে কাশিমপুরে ভোট ডাকাতির চেষ্টা হলে জনগণই তা মোকাবেলা করবে। কোন ধরণের হুমকি ধমকি ও ভয়ভীতিকে তারা পরোয়া করেন না বলেও হুঁশিয়ার করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ