ঢাকা, মঙ্গলবার 19 June 2018, ৫ আষাঢ় ১৪২৫, ৪ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজর
Online Edition

ঈদ কেটেছে ভ্যাপসা গরম আর তাপপ্রবাহে

খুলনা অফিস : ভ্যাপসা গরম আর তাপপ্রবাহে মুসলমানদের সব থেকে বড় ধর্মীয় অনুষ্ঠান পবিত্র ঈদ-উল ফিতর কেটেছে। একমাস সিয়াম সাধনার পর আসে এই মাহেন্দ্রক্ষণ। এই দিন পুরুষরা ঈদের জামাত শেষে কোলাকলি করে। একে অপরের বাড়িতে সেমাই পায়েস খায় এবং নারীরা ব্যস্ত সময় পার করেন বিভিন্ন সুস্বাদু খাবার তৈরি করে। এরপর চলে ঘুরে বেড়ানো। কিন্তু এবারের ঈদের দিনে তাপপ্রবাহ এবং ভ্যাপসা গরমে অতীষ্ঠ হয়ে পড়ে জনজীবন।
বাংলাদেশ আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার খুলনায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৭ দশমিক দুই এবং সর্বনিম্ন ২৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, শুক্রবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৮ দশমিক ৫ এবং সর্বনিম্ন ২৮ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, শনিবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৭ এবং সর্বনিম্ন ২৯ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, রোববার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪ দশমিক ৭ এবং সর্বনিম্ন ২৬ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, সোমবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৯ এবং সর্বনিম্ন ২৯ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ফলে খুলনার অধিকাংশ জায়গায় ছিল তীব্র ভ্যাপসা গরম অনুভূত হয়।
খুলনা আবহাওয়া অধিদপ্তরের কর্মকর্তা ও আবহাওয়াবিদ মো. আমিরুল আজাদ বলেন, ঈদের ছুটির ক’দিন ভ্যাপসা গরম অনুভূত হয়েছে। তিনি বলেন, আজ (সোমবার) বছরের সর্বোচ্চ ৩৯ দশমিক শূন্য ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। এ অবস্থা আরো কয়েকদিন অব্যাহত  থাকতে পারে।
বেসরকারি আবহাওয়া অফিস টোনা (বিডাব্লিউওটি)’র আবহাওয়াবিদ পারভেজ আহমেদ পলাশ জানান, বাতাসে আর্দ্রতার ভাগ বেশি থাকায় ভ্যাপসা গরম অনুভুত হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ