ঢাকা, বুধবার 20 June 2018, ৬ আষাঢ় ১৪২৫, ৫ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজর
Online Edition

শততম  ম্যাচটা স্মরণীয় করে রাখতে চান সুয়ারেজ

চলতি বিশ্বকাপে মিশরের বিপক্ষে বিশ্বকাপে ১-০ গোলের জয় দিয়ে শুভ সূচনা করেছে উরুগুয়ে। আজ রোস্তোভে গ্রুপ-‘এ’ তে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে একে অপরের মুখোমুখি হচ্ছে উরুগুয়ে ও সৌদি আরব। এই ম্যাচের মাধ্যমে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে শততম ম্যাচ খেলতে মাঠে নামবেন সুয়ারেজ। আর বার্সেলোনার এই তারকার সামনে শততম ম্যাচ স্মরণীয় করে রাখার দারুণ এক সুযোগ রয়েছে। এই ম্যাচে জয়ের মাধ্যমে উরুগুয়ের জন্য নক আউট পর্বের টিকিট নিশ্চিত হতে পারে। কিন্তু যেখানে সুয়ারেজের মত খেলোয়াড় দলে রয়েছেন সেখানে সমর্থকরাও জানেন মাঠ ও মাঠের বাইরে সবসময়ই দল তাকে নিয়ে সতর্ক অবস্থায় থাকে। গত দুটি বিশ্বকাপে সুয়ারেজের বিদায়টা অন্তত সুখকর হয়নি। ২০১০ সালে ঘানার বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালে নির্ধারিত সময় ১-১ গোলে ড্র থাকাকালীন অতিরিক্ত সময়ে ১২০ মিনিটে লাল কার্ড দেখে মাঠ ত্যাগে বাধ্য হয়। শেষ মিনিটে ঘানার একটি শট গোলপোস্টের মাঝখান থেকে হাত দিয়ে আটকে দিয়ে লাল কার্ড দেখেন সুয়ারেজ। যার ফলে পেনাল্টি পায় ঘানা। কিন্তু স্পট কিক থেকে গোল করতে ব্যর্থ হওয়ায় শেষ পর্যন্ত ম্যাচটি টাই ব্রেকারে গড়ায়। যদিও পেনাল্টি শ্যুট আউটে ৪-২ গোলে জয়ী হয়ে শেষ চার নিশ্চিত হয়েছিল উরুগুয়ের। ২০১৪ সালে । ইতালির গিওর্গিও চিয়েলিনিকে কামড়ের দায়ে সব ধরনের ফুটবল থেকে চার মাসের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছিলেন। এটি তার ক্যারিয়ারে তৃতীয় কামড়ের ঘটনা ছিল। এই ঘটনাটি কোনভাবেই মেনে নিতে পারেনি উরুগুয়ের ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা। মাঠে সুয়ারেজের কর্মকা- বা ব্যবহার নিয়ে প্রশ্ন উঠলেও তার প্রতিভা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। শতশত ম্যাচে নামছেন আজ উরুগুয়ের সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড গড়া ৩১ বছর বয়সী স্ট্রাইকার। এই ম্যাচে উরুগুয়ের মধ্যমাঠে পরিবর্তনের আভাষ পাওয়া গেছে। নাথিয়ান নানডেজ ও গিওরগিয়ান ডি আরসকায়েটার স্থানে দলে আসতে পারেন কার্লোস সানচেজ ও ক্রিস্টিয়ান রডরিগুয়েজ। এদিকে স্বাগতিক রাশিয়ার কাছে বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে ৫-০ গোলে বিধ্বস্ত হওয়া সৌদি আরব যেকোন মূল্যেই টুর্ণামেন্টে টিকে থাকার মিশনে মাঠে নামবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ