ঢাকা, শুক্রবার 22 June 2018, ৮ আষাঢ় ১৪২৫, ৭ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

অস্ট্রেলিয়া-ডেনমার্ক ম্যাচ ১-১ গোলে ড্র

স্পোর্টস রিপোর্টার : দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠার সম্ভাবনা উজ্জল করলো ডেনমার্ক। ক্ষীণ সম্ভাবনা নিয়েই টিকে থাকলো অস্ট্রেলিয়া। সামারা এরিনায় ডেনমার্কের সাথে ১-১ গোলে ড্র করেছে অস্ট্রেলিয়া। দু’দলের জন্যই ম্যাচটি ছিল গুরুত্বপূর্ণ। গ্রুপের প্রথম ম্যাচে ডেনমার্ক পেরুকে হারালেও অস্ট্রেলিয়া হেরেছে ফ্রান্সের কাছে। তাই দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠার লক্ষ্য নিয়ে খেলতে নামে ডেনমার্ক, অস্ট্রেলিয়ার লড়াই ছিল টিকে থাকার। এমন হিসেব সামনে রেখে দু’দলের লড়াইটি হয় সমানে সমান। আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে ম্যাচটি উপভোগ্য হয়ে উঠেছিল দর্শকদের কাছে। এখন ‘সি’ গ্রুপের শেষ ম্যাচেই নির্ধারিত হবে কোনো দু’টি দল দ্বিতীয় রাউন্ডে যাচ্ছে। 

বৃহস্পতিবার ম্যাচের শুরু থেকেই দু’দল আক্রমণাত্মক কৌশল নিয়ে খেলতে নামে। লড়াইটা ছিল সমানে সমান। প্রথমে গোল করে এগিয়ে যায় ডেনমার্ক। তবে পেনাল্টিতে ম্যাচে ফেরে অস্ট্রেলিয়া। ১-১ সমতা নিয়ে বিরতিতে গেছে দুই দল। ম্যাচের মাত্র ৬ মিনিটেই এগিয়ে যায় ডেনমার্ক। ডি বক্সের ভেতরে চতুরতার সঙ্গে আলতো ছোঁয়ায় সতীর্থ ক্রিশ্চিয়ান এরিকসনকে বল দিয়ে দেন নিকোলাই জারগেনসন। বক্সের মাঝে দাঁড়িয়ে থাকা এরিকসন বাঁ পায়ের জোড়ালো শটে করেন দুর্দান্ত এক গোল, অস্ট্রেলিয়া গোলরক্ষক ম্যাথু রায়ান কোনো সুযোগই পাননি (১-০)। ডেনমার্কের হয়ে গত ১৫ ম্যাচে টটেনহাম মিডফিল্ডারের এটি ১৩তম গোল। ২৪ মিনিটে আবারও এগিয়ে যেতে পারতো ডেনমার্ক। ডানপাশ থেকে হেনরিক ডালসগার্ডের ক্রসে বক্সের মধ্যে দৌঁড়ে এসে মাথা ছুঁয়ালেও সেটা ছয় গজ দূর দিয়ে চলে যায়। ৩০ মিনিটে গোলের সুযোগ তৈরি করেছিলো অস্ট্রেলিয়া। রবি ক্রুজের বক্সের মাঝ থেকে নেয়া শট আটকে যায় ডেনমার্কের রক্ষণে। একই মিনিটে বক্সের বাইরে থেকে অ্যারন ময়ের চেষ্টাও বিফলে যায়। ছয় মিনিট পার্থক্যে পেনাল্টি গোলে সমতায় আসে অস্ট্রেলিয়া। মার্ক মিলিগানের হেড বক্সের মধ্যে ইউসুফ ইউরারির হাতে লেগে গেলে ভিএআরের শরণাপন্ন হন রেফারি। ভিডিওতে হাতে লাগার প্রমান হলে রেফারী হলুদ কার্ড দেখান ইউরারিকে, সেই সাথে পেনাল্টি পায় অস্ট্রেলিয়া। অধিনায়ক মাইল জেডিনাক ঠা-া মাথায় বল জালে জড়িয়ে দিতে ভুল করেননি (১-১)।

দ্বিতীয়ার্ধে অধিকাংশই আক্রমণ ছিলো অস্ট্রেলিয়ার। ৫১ মিনিটের মাথায় বল নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার ডি বক্সে ঢুকে পড়েছিলেন ইউসুফ ইউরাফি পউলসেন। ডিফেন্ডারদের চাপে তাল সামলাতে পারেননি তিনি। সেখান থেকেই জারগেনসেন হয়ে বল পেয়েছিলেন সিস্তো। তবে সেটা তিনি মেরে দেন গোলপোস্টের ডান দিকে বাইরে দিয়ে। ৮৮ মিনিটে একইসঙ্গে দুটি সুযোগ তৈরি করেছিল অস্ট্রেলিয়া। বক্সের ডানপাশ থেকে ড্যানিয়েল আরজানির শট রুখে দেন ডেনমার্ক গোলরক্ষক স্মেইচেল। এরপর ম্যাথু লেকির বক্সের মধ্যে থেকে নেয়া শটও বাঁ দিকে ঝাপিয়ে পড়ে আটকে দেন তিনি। এরপর আর গোলের দেখা পায়নি কোনো দলই। ফলে ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় দল দু’টিকে। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ