ঢাকা, রোববার 24 June 2018, ১০ আষাঢ় ১৪২৫, ৯ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রাজধানীতে তীব্র যানজটে চরম ভোগান্তি

স্টাফ রিপোর্টার : একদিকে সকাল থেকেই বৃষ্টি। অন্যদিকে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী এবং বর্ধিত সভা। একইসাথে গুলিস্তানে দলটির নতুন ভবনের উদ্ভোধন। এই সব মিলে তীব্র যানজটের কবলে রাজধানীবাসী। গণভবনে আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা, গুলিস্তানে দলীয় কার্যালয়ের উদ্বোধনের কারণে এই এলাকায় দিনভর তীব্র যানজট লেগেই ছিল। গুলিস্তানে আওয়ামী লীগের কার্যালয় উদ্ভোধন করেন প্রধানমন্ত্রী ও দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনা। এছাড়া গণভবনের সামনের রাস্তায় বর্ধিত সভায় অংশ নিতে আসা নেতাদের গাড়ি রাখার কারণে গাবতলী থেকে আসা গাড়িগুলোকে ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করতে হয়েছে। যাত্রীরা পায়ে হেঁটেই গন্তব্যের উদ্দেশে রওয়ানা করেন।
এদিকে গতকাল সকাল থেকেই গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি। ১০টার পর সে বৃষ্টি বেড়ে যাওয়ায় ভোগান্তির শুরু রাজধানীতে। ঈদুল ফিতরের ছুটির পর গতকাল শনিবার মানুষের কর্মব্যস্ততায় রাজধানীতে ফেরে চাঞ্চল্যতা, সঙ্গে যানজটের ভোগান্তিও। যানজটের কবলে অফিসগামী চাকরিজীবী, স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীররা পড়েছেন বিপাকে। বিশেষ করে রোগী নিয়ে স্বজনদের ভোগান্তি বাড়িয়েছে যানজট। বেলা ১১টা থেকে ৫টা পর্যন্ত রাজধানীর গাবতলী থেকে আসাদগেট পর্যন্ত, আগাঁরগাও বিজয় সরণি, সংসদ ভবনের পূর্ব পাশের এলাকায় তীব্র যানজট দেখা গেছে। যানজটের কারণে রাস্তায় স্থবির হয়ে পড়ে যান চলাচল।
ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ বলছে, ট্রাফিক পুলিশ সদস্যদের যথাসম্ভব চেষ্টা সত্ত্বেও যানজট নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। গণভবনে আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভার পাশাপাশি বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টির কারণে হাঁটু পানি জমে থাকায় যানজট আরও বাড়িয়েছে। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র থেকে বিজয় সরণি ঢোকার মুখের উভয় পাশের সড়কে তীব্র যানজট লক্ষ্য করা যায়। ফার্মগেট থেকে বিজয় সরণি ও মহাখালী থেকে ফার্মগেট যাওয়ার সড়কেও যান চলাচলে স্থবির অবস্থায় লক্ষ্য করা যায়। কারওয়ান বাজারের ওয়াসা ভবনের সামনে সড়কেও পানি জমে থাকতে দেখা গেছে। অনেক পথচারীকে হাঁটুর ওপরে প্যান্ট গুটিয়ে জুতা হাতে হাঁটা শুরু করতে দেখা যায়।
বৃষ্টি কমার পরপরই রাজধানীর গুলিস্তান, বঙ্গভবন, ধানমন্ডি ২৭ নম্বর রাপা প্লাজা সংলগ্ন সড়ক, গ্রিন রোড, বাড্ডা, মিরপুরের কাজীপাড়া মেট্রোরেল প্রকল্পের পাশের সড়ক, মিরপুর ১০ নম্বর, বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার বিভিন্ন সড়কে পানি জমে যায়। সেসব সড়কে গণপরিবহন ও রিকশা না থাকায় হাঁটু পর্যন্ত পানি পেরিয়ে পায়ে হেঁটে অনেককে গন্তব্যে যেতে দেখা গেছে। পানিবদ্ধতার কারণে রাজধানীর মিরপুর রোড, শ্যামলী, মিরপুর ১০ নম্বর, ধানমন্ডি-২৭ নম্বর এলাকায় যানজট দেখা গেছে। এসব সড়কের সিগন্যাল পার হতে ২০ থেকে ৩০ মিনিট সময় লেগেছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ