ঢাকা, রোববার 24 June 2018, ১০ আষাঢ় ১৪২৫, ৯ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

পরিবহন সেক্টরে চরম নৈরাজ্যই সড়ক দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ -ড. মোশাররফ

স্টাফ রিপোর্টার: পরিবহন সেক্টরে চরম নৈরাজ্যই সড়ক দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। তিনি বলেন, পরিবহন সেক্টরে আজ চরম নৈরাজ্য ও অরাজকতা বিরাজ করছে। নিয়ন্ত্রণহীনভাবে চলছে নৈরাজ্য, চাঁদাবাজি ও লুটপাট। দেশে সড়ক দুর্ঘটনা আশংকাজনকভাবে বেড়ে যাবার অন্যতম কারণ হচ্ছে, পরিবহন সেক্টরের এই চরম নৈরাজ্য। সরকার জনগণের নিরাপদ যাতায়াত ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। দেশে জনগণের সরকার নেই বলে জাতীয়ভাবেও আজ চরম নৈরাজ্য চলছে। কোথাও কোনো জবাবদিহিতা নেই, নিয়ন্ত্রণ নেই। সরকারের নির্দেশনা কেউ মানছে না, যে যা ইচ্ছা করে যাচ্ছে। গতকাল শনিবার কুমিল্লার দাউদকান্দি পৌর সদরে তুজারভাংগা কিন্ডারগার্টেন স্কুল মাঠে সম্প্রতি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত পৌর ছাত্রদল নেতা জুয়েল প্রধান রায়হানের রুহের মাগফিরাত এবং আহতদের সুস্থতা কামনায় এক মিলাদ ও দোয়া মাহফিল পূর্ব আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। দাউদকান্দি উপজেলা ও পৌর ছাত্রদল এই দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে।
বিএনপির এই নীতিনির্ধারক নেতা আরো বলেন, দেশের জনগণের নিরাপদ ও শান্তিপূর্ণ যাতায়াত ব্যবস্থা নিশ্চিত করা সরকারের নৈতিক দায়িত্ব। সড়ক দুর্ঘটনা রোধকল্পে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন প্রতিনিয়ত আন্দোলন করছে এবং তার সমাধানের রূপরেখা দিচ্ছে। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক হচ্ছে, এই বিষয়ে সরকার কার্যকর ব্যবস্থা নিতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। সরকারের পরিবহন মন্ত্রী মিডিয়ার সামনে প্রায়শই ‘কাব্যিক কথামালা দিয়ে সাফল্যের ফুলঝুড়ি’ প্রকাশ করছেন। প্রকৃতপক্ষে তিনি পরিবহন সেক্টরে নৈরাজ্য, অরাজকতা ও সড়ক দূর্ঘটনা রোধে কিছুই করতে পারেনি।ড. মোশাররফ তার বক্তৃতায় সড়ক দূর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেতে জনসচেতনতা বৃদ্ধির উপর গুরুত্বারোপ করেন এবং আরো সচেতন হবার জন্য সকলের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান।
দাউদকান্দি উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি রোমান খন্দকার অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। বক্তৃতা করেন, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মারুফ হোসেন ও দাউদকান্দি উপজেলা বিএনপির সভাপতি একেএম সামসুল হক, দাউদকান্দি পৌর বিএনপির সভাপতি দেলোয়ার হোসেন মিয়াজী, সহ সভাপতি নুর মোহাম্মদ সেলিম সরকার, সাধারণ সম্পাদক নুরুল আমিন নাঈম সরকার, চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান, দাউদকান্দি পৌর কাউন্সিলর মোস্তাক মিয়া, সালাহ উদ্দিন সরকার ও খন্দকার সুমন, বিএনপি নেতা ফারুক আহমেদ রিপন, কাউসার আলম সরকার, কুমিল্লা উত্তর জেলা যুবদল সভাপতি ভিপি সাহাবুদ্দিন ভুঁইয়া, যুবদল নেতা বাবুল মোল্লা, শরিফ চৌধুরী, কামরুজ্জামান ফকির, ওলামা দল নেতা মাওলানা আব্দুল লতিফ, ছাত্রদল নেতা আল-আমিন সরকার, আসাদুজ্জামান লিমন, আব্দুল বাসেদ, মহিলাদল নেত্রী ফরিদা ইয়াসমিন ও আইরিন সরকার প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ