ঢাকা, রোববার 24 June 2018, ১০ আষাঢ় ১৪২৫, ৯ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

প্রথম জয় পেতে মাঠে নামবে কলম্বিয়া ও পোলান্ড

স্পোর্টস রিপোর্টার : রাশিয়া বিশ্বকাপে প্রথম জয় পেতে আজ মাঠে নামবে কলম্বিয়া ও পোলান্ড। প্রথম ম্যাচে হার দিয়ে শুরু করেছিল দল দু’টি। ফলে এই ম্যাচে জয় পেতে মরিয়া দল দু’টি। বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায় শুরু হবে ম্যাচটি। এশিয়ান পরাশক্তি জাপানের কাছে প্রথম ম্যাচে পরাজিত হয়ে সমর্থকদের হতাশ করেছে কলম্বিয়া। আর সে কারণেই গ্রুপ- ‘এইচ’এ নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে পোল্যান্ডের বিপক্ষে আর পেছনে তাকানোর কোনো সুযোগ নেই কলম্বিয়ার। দলের তারকা মিডফিল্ডার আবেল আগুইলার অন্তত তাই মনে করেন। হোসে পেকারম্যানের দল টুর্নামেন্টের আসার আগে গ্রুপের শক্ত ফেবারিট হিসেবেই পরিগণিত হচ্ছিল। কিন্তু প্রথম ম্যাচে তিন মিনিটের মধ্যে কার্লোস সানচেজের লাল কার্ডে জাপানের কাছে ২-১ গোলে পরাজিত হতে বাধ্য হয় কলম্বিয়া। পোল্যান্ডও সেনেগালের কাছে একই ব্যবধানে পরাজিত হয়ে বিশ্বকাপের শুরুটা ভাল করেনি। সে কারণেই এই দুই দলের মোকাবিলায় কোন দলই পয়েন্ট হারিয়ে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিতে চাইবে না। এর আগে দিনের শুরুতে তিন ঘন্টা আগে সেনেগাল ও জাপান একে অপরের মোকাবিলা করবে। এই ম্যাচে ড্র হলে কলম্বিয়া ও পোল্যান্ডের মধ্যে যে দল হারবে সে দলেরই বিদায় নিশ্চিত হবে। সে কারণেই আগুইলার স্বীকার করেছেন কলম্বিয়ার সামনে জয় ছাড়া বিকল্প নেই। তিনি বলেছেন, দল মানসিকভাবে শক্ত আছে, কোনো ধরনের নাটকীয়তায় তারা বিশ্বাসী নয়। ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছেন, ‘একটি বিষয় আমি নিশ্চিত করে বলতে চাই আমাদের রোববার সম্পূর্ণ ম্যাচ খেলতে হবে। বিশ্বকাপে টিকে থাকতে হলে আমাদের জয় প্রয়োজন। জাপানের বিপক্ষে ইতোমধ্যেই আমরা পয়েন্ট হারিয়েছি। ঐ পরাজয়টা দুর্ভাগ্যজনক ছিল। আমরা হতাশার মধ্যে থাকতে চাইনা। কিন্তু আমরা একটি কথাই জানি যে আমাদের সামনে এখনো দুটি ম্যাচ আছে যেখানে ভাল কিছু করতে পারলে বিশ্বকাপে সামনে এগিয়ে যাওয়া সম্ভব। জাতীয় দলে নাটকের কোন জায়গা নেই। যে ম্যাচে আমাদের জয় পাওয়া উচিত ছিল সেখানে আমরা পরাজিত হয়েছি। আমরা সবাই ঠাণ্ডা মাথায় এটা মেনে নিয়েছি। কিন্তু এখন আমাদের সামনে এগিয়ে যাবার পালা।’ পোল্যান্ডের বিপক্ষে পেকারম্যান তার দলে ছোট কিছু পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিয়েছেন। রাদামেল ফ্যালকাওয়ের সাথ আক্রমনভাগে সেভিয়া ফরোয়ার্ড লুইস মুরিয়েলকে দেখা যেতে পারে। আগের ম্যাচে মাঠে নামার সুযোগ পাননি মুরিয়েল। ইনজুরির কারণে জাপানের বিপক্ষে বদলী বেঞ্চ থেকে উঠে আসলেও হামেস রড্রিগেজকে মূল একাদশেই দেখা যাবে বলে কলম্বিয়ান বস ইঙ্গিত দিয়েছেন। বায়ার্ন মিউনিখের এই এ্যাটাকিং মিডফিল্ডারকে মোকাবিলায় পোল্যান্ডও সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। যদিও দলের সহকারী কোচ হুবার্ট মালোউইজেসকি মনে করেন হামেসকে আটকানোই দলের সাফল্যের মূল চ্যালেঞ্জ হতে পারে। তিনি বলেন, হামেসের সামর্থ্য সম্পর্কে আমরা জানি। কিন্তু আমরা কলম্বিয়াকে একটি দল হিসেবে দেখছি। যদিও তাদের দলে বেশ কয়েকজন তারকা খেলোয়াড় রয়েছে। হামেসকে স্বাভাবিক খেলার খেলতে দেয়া যাবে না। এটাই আমাদের দলের অন্যতম মূল দায়িত্ব হবে। দুই দলের একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে সানচেজ লাল কার্ডের কারণে কাল মাঠে নামতে পারবে না। ৩২ বছর বয়সী এই অভিজ্ঞ মিডফিল্ডারকে অবশ্যই কলম্বিয়া মিস করবে। বায়ার্ন মিউনিখের তারকা ফরোয়ার্ড রবার্ট লিওয়ানোদোস্কির দিকেই তাকিয়ে থাকবে পোলিশরা। সেনেগালের বিপক্ষে নিজেকে মেলে ধরতে না পারলেও দ্বিতীয় ম্যাচে তার ভাল খেলাটা দলের জন্য জরুরি। অন্যদিকে লিওয়াদোস্কির ক্লাব সতীর্থ হামেসের মূল একাদশে ফেরাটা কলম্বিয়াকে নিঃসন্দেহে উজ্জীবিত করবে। যদিও তার জায়গায় খেলতে নামা জুয়ান কুইনটেরোর গোলেই জাপানের বিপক্ষে সমতা ফিরিয়েছিল কলম্বিয়া। এর আগে একবারই কলম্বিয়া বিশ্বকাপ আসরে প্রথম দুটি ম্যাচে পরাজিত হয়েছিল। ১৯৯৪ সালে রোমানিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে পরাজয়ের পরে আর কোনো বিশ^কাপে প্রথম দুই ম্যাচে হারেনি দক্ষিণ আমেরিকান জায়ান্টরা। পোল্যান্ড তাদের গত নয়টি বিশ^কাপ ম্যাচে জয় ধরে রাখতে পারেনি। ১৯৮৬ সালে সর্বশেষ পর্তুগালের বিপক্ষে ১-০ গোলে জয়ী হয়েছিল। সেনেগালের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে গোল করতে ব্যর্থ হলেও লিওয়ানোদোস্কি জাতীয় দলের হয়ে শেষ ১৬টি ম্যচে ২১ গোল করেছেন। প্রথম কলম্বিয়ান খেলোয়াড় হিসেবে দুটি ভিন্ন বিশ্বকাপে (২০১৪ ও ২০১৮) প্রথম ম্যাচে জাপানের কাছে পরাজিত হওয়া সত্বেও কুইনটেরো গোল করার কৃতিত্ব দেখিয়েছেন। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ