ঢাকা, রোববার 24 June 2018, ১০ আষাঢ় ১৪২৫, ৯ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

উত্তর কোরিয়াকে এখনও বড় ধরনের হুমকি মনে করেন ট্রাম্প

২৩ জুন, বিবিসি : উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে পুনরায় নিষেধাজ্ঞা জারি করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, পিয়ংইয়ংয়ের পারমাণবিক অস্ত্রের কারণে দেশটি এখনও বড় ধরনের হুমকি।

মাত্র দশদিন আগে ১৩ জুন ট্রাম্প দাবি করেছিলেন, উত্তর কোরিয়ার কাছ থেকে কোনও পারমাণবিক হুমকি নেই। সিঙ্গাপুরে উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং উনের সঙ্গে বৈঠকের পর এক টুইটে এই মন্তব্য করেছিলেন ট্রাম্প। কিন্তু এখন তিনি বলছেন উত্তর কোরিয়া এখনও বড় ধরনের হুমকি।

দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে দুটি সামরিক মহড়া স্থগিত করার পর ট্রাম্প এই হুমকির কথা সামনে আনলেন। মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতর পেন্টাগনের দাবি, কূটনৈতিক সমঝোতাকে সমর্থন জানাতেই মহড়া স্থগিত করা হয়েছে। এর আগে চলতি সপ্তাহে উভয় দেশের আরেকটি বড় ধরনের মহড়া স্থগিত করা হয়েছিল।

২০০৮ সাল থেকেই উত্তর কোরিয়া ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় জরুরি অবস্থা জারি রেখেছে। এরপর থেকেই মার্কিন প্রেসিডেন্টরা এই অবস্থা নিয়মিত জারি এবং উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে গেছেন।

গত শুক্রবার ট্রাম্প এই জাতীয় জরুরি অবস্থার মেয়াদ আরও বাড়িয়েছেন। মার্কিন কংগ্রেসকে এক নোটিশে ট্রাম্প জানিয়েছেন, উত্তর কোরিয়ার সরকারের পদক্ষেপ ও ঝুঁকিপূর্ণ অস্ত্রের কারণে দেশটি যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা, পররাষ্ট্রনীতি ও অর্থনীতির জন্য বড় ধরনের হুমকি। অথচ ১২ জুন (মঙ্গলবার) সিঙ্গাপুরে উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং উনের সঙ্গে ঐতিহাসিক এক বৈঠকের পর দুই দেশের মধ্যে সমঝোতা চুক্তি সম্পন্ন হয়। সেই চুক্তির বিষয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে কোরীয় উপদ্বীপে ‘উষ্কানিমূলক যুদ্ধ যুদ্ধ খেলা’ বন্ধের ঘোষণা দিয়ে চমক দেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, মার্কিন সেনাদের দেশে ফিরিয়ে নিতে চান তিনি। আগে এই সামরিক মহড়া সমর্থন করলেও ট্রাম্প এখন সেদিন একে ‘উষ্কানিকমূলক’ আখ্যা দেন।

যুক্তরাষ্ট্রের বিরোধী দল ডেমোক্র্যাট পার্টির নেতারা হোয়াইট হাউসের এই অবস্থানকে সাংঘর্ষিক বলে দাবি করছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ