ঢাকা, রোববার 24 June 2018, ১০ আষাঢ় ১৪২৫, ৯ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

গণতন্ত্রের বিপন্নতার মধ্যে বাস করছেন বিশ্বের এক তৃতীয়াংশ মানুষ

২৩ জুন, ওয়েবসাইট : ‘ডেমোক্র্যাটাইজেশন’ নামের জার্নালে প্রকাশিত সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা গেছে, গণতন্ত্রের বিপন্নতার মধ্যে বসবাস করছে বিশ্বের এক তৃতীয়াংশ মানুষ। অর্ধশতাব্দীর তথ্যউপাত্তের ভিত্তিতে ১৮০টি দেশের ওপর ওই গবেষণা সম্পাদিত হয়েছে। গবেষণার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট রাষ্ট্রবিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, ২০১৭ সালে বিশ্বের বেশিরভাগ মানুষ গণতান্ত্রিক ব্যবস্থার মধ্যে থাকলেও ওই দেশগুলোর মধ্যে ২৪টিতে গণতান্ত্রিক পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। ২৬০ কোটি জনসংখ্যার সেই ২৪ দেশের মধ্যে রয়েছে ভারত, তুরস্ক, ব্রাজিল, পোল্যান্ড, রাশিয়া আর যুক্তরাষ্ট্র। গবেষকদের অনুসন্ধানে দেখা গেছে,  বিশ্বজুড়ে গণতান্ত্রিক পরিস্থিতির এই বিপন্নতার মধ্যেও আফ্রিকা অঞ্চলের পরিস্থিতির উন্নয়ন ঘটেছে।

গবেষণাটি সম্পাদিত হয়েছে ‘গণতন্ত্রের নানা দিক’ (ভ্যারাইটিজ অব ডেমোক্র্যাসিস) নামের তথ্যবিবরণীর আলোকে। বিশ্বের ৩০০০ বিশেষজ্ঞ গত অর্ধশতাব্দীর লাখ লাখ তথ্য উপাত্ত বিশ্লেষণ করে ওই তথ্যবিবরণী তৈরি করেছেন। ওই গবেষণায় গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানের অবস্থার বিবেচনায় ১৮০টি দেশকে চারটি পর্যায়ে ভাগ করা হয়েছে। এগুলো হলো, লিবারেল ডেমোক্র্যাসি (উদার গণতন্ত্র), ইলেক্টরাল ডেমোক্র্যাসি (নির্বাচনি গণতন্ত্র), ইলেক্টরাল অটোক্র্যাসি (নির্বাচনি স্বৈরতন্ত্র) এবং সবশেষ ক্লোজড অটোক্র্যাসি (রুদ্ধ স্বৈরতন্ত্র) ।  

যে দেশগুলোতে স্বাধীন-নিরপেক্ষ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন ব্যবস্থা কার্যকর, আইনের শাসনসহ মিডিয়া ও বিচারবিভাগের স্বাধীনতা বিদ্যমান সেই দেশগুলোকে উদার গণতান্ত্রিক দেশ হিসেবে পর্যায়ভূক্ত করা হয়েছে। গবেষণার ফলাফল অনুযায়ী বিশ্বের মাত্র ১৪ শতাংশ মানুষ এই শ্রেয়তর গণতান্ত্রিক প্রতিবেশে বসবাস করছে। নির্বাচনি গণতন্ত্র পর্যায়ভূক্ত করা হয়েছে সেই দেশগুলোকে, যেগুলোতে মুক্ত-স্বাধীন ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলেও শীর্ষ রাষ্ট্রনায়কের ভূমিকায় আইনের শাসন ও মিডিয়া ও বিচারবিভাগের স্বাধীনতার পরিসর সংকুচিত। বিশ্ব জনসংখ্যার মাত্র অর্ধেক মানুষ উদার গণতন্ত্র ও নির্বাচনি গণতান্ত্রিক ব্যবস্থার আওতায় বসবাস করছে। গবেষণায় ইলেক্টরাল অটোক্র্যাসির অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে সেই দেশগুলোকে যেগুলোতে একমুখী নির্বাচনী ব্যবস্থার অধীনে গণতন্ত্রের লেবাসে স্বৈরতন্ত্র জারি থাকে, নাগরিক স্বাধীনতার পরিসর সংকুচিত হয়, সংবাদমাধ্যমে জারি থাকে ভয়াবহ সেন্সরশিপ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ