ঢাকা, মঙ্গলবার 26 June 2018, ১২ আষাঢ় ১৪২৫, ১১ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রাশিয়াকে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন উরুগুয়ে

কামরুজ্জামান হিরু : স্বাগতিক রাশিয়াকে হারিয়ে ‘এ’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হলো উরুগুয়ে। জিতলে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সম্মান, হারলেও কোন ক্ষতি নেই। এমন সমীকরণ সামনে রেখেই গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল স্বাগতিক রাশিয়া এবং উরুগুয়ে। গ্রুপ পর্বের প্রথম দু’টি ম্যাচ জিতে রাশিয়া (সৌদি আরবকে ৫-০ ও মিসরকে ৩-১) ও উরুগুয়ে (সৌদি আরবকে ১-০ ও মিসরকে ১-০) বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলা নিশ্চিত করে রেখেছিল। তাই গ্রুপের শেষ ম্যাচটি উরুগুয়ে ও স্বাগতিক রাশিয়ার জন্য ছিল শীর্ষস্থান দখলের লড়াই। স্বাগতিকদের বিপক্ষে সাচ্ছন্দে খেলেই ৩-০ গোলে জয় তুলে নিয়েছে ল্যাটিন আমেরিকার দেশটি। ম্যাচের প্রথমার্ধে বিজয়ী দল ২-০ গোলে এগিয়েছিল।
সামারা অ্যারেনায় অনুষ্ঠিত ম্যাচের শুরু থেকেই রাশিয়ান রক্ষণে চেপে ধরতে শুরু করে উরুগুয়ে। ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই ডি বক্সের বাইরে থেকে দূরপাল্লার শট নেন ম্যাতিয়াস ভেনিক। অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয় সেটি। মিনিটখানেক বাদে ডি বক্সের কাছে ফ্রিকিক পেয়েও কোনো কাজ করতে পারেনি উরুগুয়ে। তবে দশম মিনিটে ফ্রিকিক পেয়ে কোনো ভুল করেননি লুইস সুয়ারেজ। ডি বক্সের একদম কাছে ইউরি গ্যাজিনস্কি রদ্রিগো ভেনটাঙ্কুরকে ফাউল করলে ফ্রিকিক পায় উরুগুয়ে। ম্যাচের প্রথম হলুদ কার্ড দেখেন ভেনটাঙ্কুর। বুদ্ধিদীপ্ত ফ্রিকিকে দলকে এগিয়ে দেন বার্সেলোনার তারকা সুয়ারেজ। চলতি বিশ্বকাপে এটি তার দ্বিতীয় গোল। গোল হজম করে পাল্টা আক্রমণে মেতে ওঠে স্বাগতিকরা। ১২ মিনিটে ডেনিস চেরিশেভের শট ঠেকিয়ে দেন উরুগুয়ের গোলরক্ষক ফার্নান্দো মুসলেরা। আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে এগুতে থাকে ম্যাচ। ২৩ মিনিটে নিজেদের জালেই বল ঢুকিয়ে দেন ডেনিস চেরিশেভ। দিয়েগো ল্যাক্সালতের বুলেট গতির শট চেরিশেভের পায়ে লেগে ঢুকে যায় রাশিয়ার জালে। ২৩ মিনিটের মধ্যেই ২-০ গোলে এগিয়ে যায় উরুগুয়ে। দুই গোলে পিছিয়ে থাকা রাশিয়ার আরও বড় বিপর্যয় ঘটে ৩৬ মিনিটে। স্মলনিকভ দুই হলুদ কার্ডের কারণে লাল কার্ড পেয়ে মাঠ ছাড়ে। ফলে দশজনের দলে পরিণত হয় রাশিয়া। দশজনের রাশিয়ার বিপক্ষে দ্বিতীয়ার্ধে আরো একটি গোল আদায় করে নেয় উরুগুয়ে। ম্যাচের ৯০ মিনিটে দারুণ এক গোল করেন কাভানি। কর্নার থেকে উড়ে আসা বল থেকে হেড নেন উরুগুয়ে ডিফেন্ডার দিয়েগো গোডিন। তবে সেই বল রুখে দেন স্বাগতিক গোলরক্ষক। কিন্তু ফিরতি বল থেকে বাঁ পায়ের জোরালো শটে গোল বল জালে জড়ান কাভানি। ম্যাচের বাকি সময়ে আর গোল না হলে ৩-০ গোলের জয় তুলে সুয়ারেজ কাভানিরা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ