ঢাকা, মঙ্গলবার 26 June 2018, ১২ আষাঢ় ১৪২৫, ১১ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

জয় নিয়ে দেশে ফিরছে সৌদি আরব

স্পোর্টস রিপোর্টার : রাশিয়া বিশ্বকাপে নিয়মরক্ষার ম্যাচে জয় পেল সৌদি আরব। গতকাল শেষ ম্যাচে সৌদি আরব ২-১ গোলে হারিয়েছে মিসরকে। গতকাল গ্রুপ পর্বে শেষ ম্যাচে মাঠে নেমিছিল দল দু’টি। দু’টি দলের সামনে টার্গেট ছিল একটি শান্তনার জয় নিয়ে দেশে ফেরা। তবে নিয়মরক্ষার ম্যাচ হলেও জয় পেল সৌদি আরব। মিসরকে হারিয়ে বিশ্বকাপে প্রথম জয়ের দেখা পেল দলটি।  রাশিয়া বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্ব থেকে আগেই বাদ পড়েছে সৌদি আবর আর মিসর। নিজেদের প্রথম দু’টি ম্যাচে হারায় দল দু’টির সামনে দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়া কোনো সুযোগই ছিলনা। তাই ‘এ’ গ্রুপের শেষ ম্যাচে দল দু’টির মধ্যে ম্যাচটি ছিল নিয়মরক্ষা আর মর্যাদার লড়াই। এছাড়া বিশ্বকাপে দল দুটির প্রথম জয়ের প্রত্যাশার ম্যাচও ছিল এটি। তবে ম্যাচের প্রথমার্ধে গোল করে এগিয়ে যায় মিসরই। দলের পক্ষে মোহাম্মদ সালাহ গোল করে দলকে এগিয়ে দেন। কিন্তু বিরতির আগেই সমতায় ফিরে সৌদি আরব। পেনাল্টি থেকে গোল পায় দলটি। দলের পক্ষে গোল করেন সালমান আল-ফারাজ। ফলে বিরতির আগে ১-১ গোলেই সমতায় ছিল ম্যাচটি। বিরতির পর নির্ধারিত সময়ে কোন দল গোল করতে না পারলেও অতিরিক্ত সময়ে সৌদি আরব একটি গোল করে ম্যাচে জয়ী হয় ২-১ গোলে। দলের পেক্ষে গোলটি করেন সালেম আল দাও সাওরি। খেলার ১২ মিনিটের সময় ম্যাচের প্রথম সুযোগটি মিস করেন সৌদি ফুটবলার আলো দাওসারি। ১৪ মিনিটে আরো একবার দূর থেকে শট নেন তিনি। এবারও ফলাফল একই। ম্যাচের ২২ মিনিটে সৌদি রক্ষণভাগ ভাঙেন সালাহ। আলো সাঈদের দূর থেকে দেওয়া ক্রসে গোলরক্ষকের মাথার উপর দিয়ে শটে দারুণ গোল করেন সালাহ। বিশ্বকাপে এটি তার দ্বিতীয় গোল।  ৩৩ ও ৩৪ মিনিটে দু’বার এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছিল মিসর। কিন্তু ত্রেজেগেত দু’বারই গোলমুখের একদম সামনে এসে বাইরে শট করেন। পিছিয়ে ছিল না সৌদি আরবও। প্রথমার্ধ শেষ হওয়ার ৪ মিনিট আগে পেনাল্টি পায় সৌদি আরব। ডি বক্সের ভেতর আলো ফাতহির হ্যান্ডবলে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন রেফারি। কিন্তু স্পট কিক থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন সৌদি আরবের আলো মুওয়ালাদ। ৪৫ বছর বয়ষ্ক মিসরের গোলরক্ষক এল হাদারি দারুণভাবে সেভ করেন মুওয়ালাদের শট। অতিরিক্ত সময়ের দুই মিনিটের মাথায় ম্যাচে দ্বিতীয়বার পেনাল্টি পায় সৌদি আরব। মুওয়ালাদকে ডি বক্সের ভেতর গাবর হাত টেনে ফেলে দিলে রেফারি পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন। ভিডিও এসিস্ট্যান্ট রেফারির সহায়তা নিয়েও রেফারি সেই পেনাল্টিকেই বহাল রাখেন। স্পট কিক থেকে সালমান আল ফারাজ সৌদিদের হয়ে বিশ্বকাপে প্রথম গোলটি করেন। এই ম্যাচেই মিসরের গোলকিপার ইসাম এল-হাদারি শেষ পর্যন্ত রেকড গড়ার সুযোগ পেলেন। এই টুর্নামেন্টের ইতিহাসের সবচেয়ে বেশি বয়সের খেলোয়াড় এখন তিনি। ৪৫ বছর ১৬১ দিন বয়সে বিশ্বকাপের ম্যাচ খেলতে নেমেছেন তিনি। আর এই ম্যাচে একটি পেনাল্টি সেভও করলেন তিনি। এর আগে কলম্বিয়ার সাবেক গোলকিপার ফারিদ মনদ্রাগন এতদিন রেকর্ডটির মালিক ছিলেন। ২০১৪ বিশ্বকাপে ৪৩ বছর বয়সে খেলেছিলেন তিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ