ঢাকা, বুধবার 27 June 2018, ১৩ আষাঢ় ১৪২৫, ১২ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বঙ্গোপসাগরে জেলেদের জালে ধরা পড়তে শুরু করেছে ইলিশ

খুলনা অফিস : পূর্ব সুন্দরবন সংলগ্ন বঙ্গোপসাগরে জেলেদের জালে ধরা পড়তে শুরু করেছে ঝাঁকে ঝাঁকে রূপালী ইলিশ। র‌্যাব-কোস্ট গার্ডসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতায় সুন্দরবন সংলগ্ন বঙ্গোপসাগরে এখন জলদস্যু আতঙ্ক না থাকলেও মওসুমের শুরুতে ইলিশের দেখা না পাওয়ায় অনেকটা হতাশায় ভুগছিলেন জেলেরা। তবে হঠাৎ করে সাগরে কাঙ্খিত রূপালি ইলিশ ধরা পড়ায় হাসি ফুটেছে জেলে, আড়তদার ও মৎস্যজীবীদের মুখে। গত এক সপ্তাহের অধিক সময় ধরে গভীর সমুদ্রে থাকা ইলিশ বোঝাই ট্রলারগুলো আসতে শুরু করেছে বাগেরহাটের প্রধান মৎস্য আড়ত কেবি বাজারে। আর এ কারনেই কেবি বাজারের জেলে, আড়ৎদার ও মৎস্য ব্যবসায়ীরা পার করছেন ব্যস্ত সময়। 

কেবি বাজারে গিয়ে দেখা যায়, গত তিন দিনে সাগর থেকে ইলিশ বোঝাই করে ফিরেছে ৩০টি ট্রলার। ফিরে আসা ইলিশ ভর্তি এসব ট্রলার কেবি বাজারের সামনে দিয়ে বয়ে যাওয়া দাড়াটানা নদীর ঘাটে সারিবদ্ধভাবে নোঙ্গর করে রাখা হয়েছে। মওসুমের শুরুতে ইলিশের দেখা না পেলেও এখন কাঙ্খিত ইলিশ ধরা পড়তে শুরু করায় হাসি ফুটেছে কেবি বাজারের জেলে, আড়তদার ও মৎস্যজীবীদের মুখে। সেই সাথে কর্মব্যস্ত সময় পার করছেন এ বাজারের জেলে, আড়ৎদার ও মৎস্য ব্যবসায়ীরা। কেউ ইলিশ মাছের ঝুড়ি টানছেন, কেউ প্যাকেট করছেন, আবার কেউ কেউ সেই প্যাকেট দেশের বিভিন্ন স্থানে পাঠাতে তুলে দিচ্ছেন ট্রাকে। 

দাড়াটানা নদীর ঘাটে নোঙ্গর ট্রলারের জেলে ইলিয়াস বলেন, মওসুমের প্রথম দিকে ইলিশের দেখা মেলেনি। তাই ট্রলার মালিকসহ মৎস্য পেশার সঙ্গে জড়িত সবাই হতাশ হয়ে পড়েছিলেন। তবে সাগরে হঠাৎ করে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ ধরা পড়তে শুরু করেছে। 

বাগেরহাট উপকূলীয় মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির সভাপতি শেখ ইদ্রিস আলী জানান, মওসুমের শুরুতে ইলিশ না মিললেও জুনের শেষের দিক এসে সুন্দরবন সংলগ্ন গভীর সমুদ্রে জেলেদের জালে ইলিশ ধরা পড়তে শুরু করেছে। গত তিন দিনে ইলিশ বোঝাই ৩০টি ট্রলার কেবি বাজারের সংলগ্ন ঘাটে নোঙ্গর করেছে। এ ট্রলারগুলোর প্রত্যেকটিতে পর্যাপ্ত পরিমাণ বড় সাইজের ইলিশ না থাকলেও ৪শ’ থেকে ৫শ’ গ্রামের মোটামুটি ভালো সাইজের ইলিশ তারা এনেছেন। আগামী জুলাই মাসে জেলেদের জালে আরো বেশি পরিমাণ ইলিশ ধরা পড়বে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। বাগেরহাট কেবি বাজার মৎস্য আড়তদার সমিতির সভাপতি এসএম আবেদ আলী বলেন, মাসের শেষ দিকে এসে জেলেদের জালে ইলিশ ধরা পড়তে শুরু করেছে। তবে গত দু’দিনে আবহাওয়া খারাপ থাকায় সুন্দরবন সংলগ্ন বিভিন্ন খালে জেলে ট্রলার নোঙ্গর করে অবস্থায় নিয়েছে। আবহাওয়া ভালো হলে তারা আবার মাছ ধরতে সাগরে ফিরে যাবে। এর মধ্যে কিছু ট্রলার মাছ নিয়ে কেবি বাজারে ফিরেছে। আগামী এক-দুই সপ্তাহের মধ্যে ইলিশের পরিমাণ বাড়তে পারে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। সাগরে এবার জলদস্যু আতঙ্ক আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি জানান, এখনও পর্যন্ত সাগরে মাছ ধরতে যাওয়া কোন জেলে জলদস্যুদের হাতে অপহৃত বা চাঁদাবাজীর শিকার হয়নি। সাগরে কোস্ট গার্ডের সদস্যরা নিয়োমিত টহল দিচ্ছে বলে তিনি জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ