ঢাকা, বুধবার 27 June 2018, ১৩ আষাঢ় ১৪২৫, ১২ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

মাদক মামলার আসামীদের জামিন করাতে তৎপর ব্যক্তিদের চিহ্নিত করা হচ্ছে -ডিএমপি কমিশনার

স্টাফ রিপোর্টার : মাদক মামলার আসামিদের জামিনে মুক্ত করতে তৎপর ব্যক্তিদের চিহ্নিত করার কাজ চলছে বলে জানিয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। গতকাল মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক মাদকবিরোধী দিবস উপলক্ষে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।
ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘অসংখ্য মাদক ব্যবসায়ীদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা গ্রেফতার করেছে। তারা কারান্তরীণ। কিন্তু তাদের জামিনে মুক্ত করতে একটা গ্রুপ কাজ করছে। যারা মাদক মামলার আসামীদের জামিনে মুক্ত করতে তৎপর, তাদের চিহ্নত করার কাজ চলছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘মাদকের বিরুদ্ধে, মাদকের ব্যবহারের বিরুদ্ধে, মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে আমাদের যুদ্ধ চলবে। মাদক নির্মূল করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি সামাজিকভাবে প্রতিহত করতে হবে।’
মাদক প্রতিরোধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছে কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ‘ঢাকা মহানগরীতে প্রতিদিন মাদকের আখড়া শনাক্ত করে সেটিকে গুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। আজকেও মিরপুরের পল্লবীতে বিভিন্ন এলাকায় ৩ হাজার পুলিশের মাদকবিরোধী অভিযান চলছে এবং এটা প্রতিদিনই চলবে।’
তিনি অঙ্গীকার করে বলেন, ‘এই মহানগরীতে যদি একটি মাদকের আখড়াও থাকে তাহলে আমরা সেটিকেও গুড়িয়ে দেবো। মাদক ব্যবসায়ী যেই হোক, তার পরিচয় যাই হোক, তিনি যত শক্তিশালীই হোন না কেন কাউকেই রেহাই দেওয়া হবে না। আমি আবারও বলতে চাই মাদক ব্যবসায়ী যেই হোক, তার কোমরে রশি বেঁধে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হবে ইনশাআল্লাহ।’
জঙ্গি মোকালবেলা সফলতার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আপনারা জানেন হলি আর্টিজেনের ঘটনার ৬ মাসের মধ্যে আমরা জঙ্গি নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হয়েছি। আশা করি সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতায় মাদক সমস্যা নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হব।’ তিনি আরও বলেন, ‘যদি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কোনও সদস্য যদি মাদক ব্যবসায়ীর সহায়তা করার ন্যূনতম চেষ্টা করে, তার বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।’
আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। এছাড়াও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব ফরিদ উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ