ঢাকা, বুধবার 27 June 2018, ১৩ আষাঢ় ১৪২৫, ১২ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চট্টগ্রামে যুবলীগ কর্মী অনিক হত্যা মামলার ৪ আসামী গ্রেফতার ॥ পিস্তল উদ্ধার

চট্টগ্রাম ব্যুরো : চট্টগ্রামের চাঞ্চল্যকর যুবলীগ কর্মী অনিক হত্যা মামলার প্রধান আসামী তুষারসহ ৪ আসামী গ্রেফতার হয়েছে। তাদের মধ্যে প্রধান আসামী তুষার ও ১০ নং আসামী এখলাছ ভারতের কলকাতা ও অন্য দুই আসামী কুমিল্লার দাউদকান্দি হতে গ্রেফতার হয়েছে। এরা সবাই ছাত্রলীগ ও যুবলীগ কর্মী বলে স্থানীয়রা জানায়।
গতকাল চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ১৭ জুন বিকাল অনুমান ৫টার সময় কোতোয়ালী থানাধীন ব্যাটারি গলির মুখে মোটরসাইকেল চালানোর সময় গায়ে বাতাস লাগাকে কেন্দ্র করে দামপাড়াস্থ ২ নং পল্টন রোডের আবু হেনা রনিকসহ ৫ জন উঠতি বয়সী তরুণ ও ব্যাটারিগলিস্থ ইমন, মোঃ মহিন উদ্দিন তুষারসহ একদল উঠতি বয়সী তরুণের মধ্যে তর্কবিতর্ক ও মারামারির ঘটনা ঘটে।
এরই সূত্র ধরে একই দিন রাত অনুমানিক সাড়ে ৮ টার সময় মোঃ মহিন উদ্দিন তুষারের নেতৃত্বে ২৫/৩০ জন তরুণ লাঠি সোটা, চাকু ও পিস্তলসহ গুলী করতে করতে দামপাড়াস্থ ২ নং পল্টন রোডের মুখে এসে আবু হেনা রনিকের বড় ভাই আবু জাফর অনিককে তাদের পিতা মোঃ নাছিরের সামনে লাঠির আঘাতসহ চাকু দ্বারা বুকে ও কোমরে আঘাত করে পালিয়ে যায়। আবু জাফর অনিককে আহত অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করে। তাৎক্ষণিক চকবাজার থানা পুলিশ ও উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ঘটনার প্রাথমিক তদন্তসহ জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেফতারের প্রচেষ্টা শুরু করেন।
১৮ জুন নিহত আবু জাফর অনিকের পিতা মোঃ নাছির বাদী  হয়ে মোঃ মহিন উদ্দিন তুষারসহ ১২ জন আসামীর নাম উল্লেখসহ ১৫/২০ জন অজ্ঞাতনামা আসামীর কথা উল্লেখ করে এজাহার দায়ের করলে চকবাজার থানার মামলা নং-৬, তারিখ- ১৮/০৬/২০১৮ইং, ধারা-১৪৪/৩০২/৩৪ দঃ বিঃ রুজু করা হয়। এক পর্যায়ে ১নং আসামী মোহাম্মদ মহিনউদ্দিন তুষার (৩০), পিতা-মৃত কলিম উদ্দিন খসরু, যশোর বেনাপোল ইমিগ্রেশন হয়ে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার তথ্য পাওয়া যায়। অতপর  আসামীদ্বয়কে গ্রেফতারের জন্য পুলিশ সদর দপ্তরের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট দেশে পত্র প্রেরণ করা হয়। প্রেরিত পত্র পাওয়ার পর ভারতীয় পুলিশ আসামীদ্বয়ের ভিসা বাতিল করে বাংলাদেশ বেনাপোল সীমান্তে প্রেরণ করলে বেনাপোল সীমান্ত হতে চকবাজার থানা পুলিশ আসামীদ্বয়কে গ্রেফতার করেন এবং ২৬ জুন ৫.১৫ টার সময় ১ নং আসামী মোহাম্মদ মহিনউদ্দিন তুষার (৩০) এর বাসা হতে ঘটনায় ব্যবহৃত ১টি বিদেশী পিস্তল উদ্ধার করা হয়। এই পিস্তল দিয়ে মোহাম্মদ মহিনউদ্দিন তুষার (৩০) ঘটনার সময়ে গুলী করে বলে তদন্তে জানা যায়। এ ছাড়া এজাহারনামীয় ৪ নং আসামী জোনায়েদ আহম্মদ ইমন (১৯) ও ৫ নং আসামী জোবায়েদ আহম্মদ শোভন (২২), উভয় পিতা-মোঃ সগির আহম্মদ, সাং-২৭ ুনং দামপাড়া, ১নং গলি, থানা-চকবাজার, জেলা-চট্টগ্রাম’দ্বয়কে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি থানা এলাকা হইতে গ্রেফতার করে চট্টগ্রামে আনে। এজাহারনামীয় ও জড়িত অপরাপর আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ