ঢাকা, বৃহস্পতিবার 28 June 2018, ১৪ আষাঢ় ১৪২৫, ১৩ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চট্টগ্রামের হালিশহরে জন্ডিসে আক্রান্ত হয়ে ৩ জনের মৃত্যু!

চট্টগ্রাম ব্যুরো : চট্টগ্রাম মহানগরীর হালিশহরে জন্ডিসে আক্রান্ত হয়ে ৩ জনের মৃত্যুর ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। সরকারি বিভিন্ন বিভাগ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন, চট্টগ্রাম ওয়াসা,স্বাস্থ্য বিভাগ মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধান ও জন্ডিস প্রতিরোধে নানা পদক্ষেপ গ্রহণ শুরু করেছে।
চসিক সূত্রের খবর, জন্ডিসে আক্রান্ত হয়ে হালিশহরের শাহেদা বেগম মিলি (৪০), ইয়াসির আরাফাত (২৮) ও আশিকুল হাসান রিসাত (১৮) নামের তিনজনের মৃত্যুর খবরটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ার পর চসিকের স্বাস্থ্য বিভাগের চিকিৎসকরা হালিশহরে জন্ডিসে ৩ জনের মৃত্যুর বিষয়টি খতিয়ে দেখতে মাঠে নেমেছে। তারা  এ সংক্রান্ত তথ্য উপাত্ত সংগ্রহের কাজ করছে।
 এদিকে নগরীর বেসরকারি বিভিন্ন হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার থেকে হালিশহরের জন্ডিসে আক্রান্তদের তথ্য সংগ্রহে কাজ শুরু করেছে সিভিল সার্জন কার্যালয়। বিষয়টি তদন্তে ঢাকার রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইআইডিসিআর) দুই সদস্যের একটি টিম  চট্টগ্রামে এসেছে। সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র বলছে , গত এপ্রিল থেকে ঈদের আগ পর্যন্ত হালিশহর এলাকার ১৭৮ জনের জন্ডিসে (হেপাটাইটিস ‘ই’) আক্রান্ত হওয়ার তথ্য রয়েছে। এর বাইরে বর্তমানে ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজে (বিআইটিআইডি) ৩ জন, আগ্রাবাদের মা ও শিশু হাসপাতালে এক শিশুসহ ৯ জন রোগীর ভর্তি থাকার তথ্য পাওয়া গেছে। এছাড়া হালিশহরের একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে রক্ত পরীক্ষা করা ১৭ জনের এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।
সিভিল সার্জন ডা. আজিজুর রহমান সিদ্দিকী বলছেন,জন্ডিস ও ডায়রিয়া উভয়ই পানিবাহিত রোগ হওয়ায় পানিই এসব রোগের কারণ। তিনি বলেন, জন্ডিস আক্রান্ত হলেও এতে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। জন্ডিস পানিবাহিত রোগ। আবার ঘরে কিংবা হোটেলে বাসি খাবার খেলেও জন্ডিস হয়ে থাকে। জন্ডিসের মধ্যে ৫টি ক্যাটাগরি রয়েছে। হেপাটাইটিস এ, বি, সি, ডি এবং ই। এর মধ্যে হেপাটাইটিস ‘বি’ ও ‘সি’ আক্রান্ত হলে সেটি গুরুতর বলা হয়। হেপাটাইটিস ‘ডি’ কে মধ্যম পর্যায় ধরা হয়। আর হেপাটাইটিস ‘এ’ এবং ‘ই কে প্রাথমিক পর্যায় ধরা হয়ে থাকে।
 এদিকে চট্টগ্রাম ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী এ কে এম ফজল্লুাহ গত মঙ্গলবার নগরীর হালিশহর এলাকার আই এবং এইচ ব্লকের বিভিন্ন আবাসিক ভবন পরিদর্শন করেন। এ সময়ে সংশ্লিষ্ট এলাকার বিভিন্ন বাসাুবাড়ির পানির  নমুনা সংগ্রহ করেন ওয়াসার পরিদর্শকেরা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ