ঢাকা, শুক্রবার 29 June 2018, ১৫ আষাঢ় ১৪২৫, ১৪ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

তুরস্কে রাজনৈতিক দলগুলোর খরচ বহন করে রাষ্ট্র

তুরস্ক থেকে হাফিজুর রহমান: তুরস্কে রাজনৈতিক দলগুলোর খরচ বহন করার জন্য রয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে বার্ষিক বাজেট। তবে সেজন্য শর্ত হল, দলের পার্লামেন্টারী গ্রুপ থাকা (কমপক্ষে ২০ জন এমপি থাকলে পার্লামেন্টারী গ্রুপ করা যায়) অথবা বিগত সংসদ নির্বাচনে কমপক্ষে ৩% ভোট থাকা। রাজনৈতিক দলগুলোর জন্য বরাদ্দকৃত বার্ষিক বাজেট ভোটের অনুপাতে দলগুলোর মধ্যে বন্টন করা হয়। যে বছর নির্বাচন থাকে সে বছর বাজেট দ্বিগুণ হয়ে যায়।

২০১৮ সালে মোট বাজেট ছিল ২৭৩.৮ মিলিয়ন লিরা। যার মধ্যে একে পার্টি ১৩৯.১ মিলিয়ন, সিএইচপি ৭১.২ মিলিয়ন, এমএইচপি ৩৩.৩ মিলিয়ন এবং কুর্দীদের দল এইচডিপি ৩০.১ মিলিয়ন লিরা পেয়েছে। এ বছর নির্বাচন হওয়ায় সবগুলো দল এই পরিমাণ অর্থ আবারও পাবে।

রাজনীতিতে চাঁদাবাজী, সন্ত্রাসী কিংবা দুর্নীতি বন্ধে আমার কাছে এটা সবচেয়ে কার্যকর পন্থা বলে মনে হয়। পাশাপাশি আরেকটি বিষয় খূব ভালো এখানে। আর তা হল, এমপিরা এখানে অবসর ভাতা (পেনশন) পান। এমপিদের পেনশনের পরিমাণটাও বেশ স্মার্ট, যা দিয়ে তার দিব্যি চলে যায়। এজন্য এমপি থাকা অবস্থায় দুর্নীতি করার প্রয়োজন হয়না। অবশ্য তুরস্কের বিদ্যমান ব্যবস্থায় এমপিদের দুর্নীতি করার সুযোগই নেই। কারণ তারা শুধু আইন পাশ ও সরকারের পলিসি নিয়েই কাজ করেন। স্থানীয় উন্নয়ন কর্মকান্ড সব স্থানীয় সরকার প্রতিনিধিদের হাতে। এমপিরা এখানে আদেশ কিংবা উপদেশ কিছুই দিতে পারেনা হয়তো সামান্য রিকোয়েস্ট করতে পারেন। কিন্তু স্থানীয় সরকার প্রতিনিধিরা তাদের রিকোয়েস্ট শুনতে বাধ্য নন।

উল্লেখ্য, রাষ্ট্রীয় বাজেট পাওয়ার পর যেনতেনভাবে টাকা খরচ করার সুযোগ নেই। রাষ্ট্রীয় অডিট দপ্তরে খরচগুলোর ব্যাপারে জবাবদিহি করতে হয় দলগুলোকে।

চ-১ (উ) ২৮-০৬-১৮ ঐ- ৬  

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ