ঢাকা, শুক্রবার 29 June 2018, ১৫ আষাঢ় ১৪২৫, ১৪ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

মেয়র পদে বিএনপি-আ’লীগসহ ৬ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল

রাজশাহী : রাসিক নির্বাচনে মেয়র পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করছেন (বামে) বিএনপির বুলবুল ও (ডানে) আ’লীগের লিটন -সংগ্রাম

রাজশাহী অফিস : রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন (রাসিক) নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপি ও আ’লীগসহ ৬ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এছাড়াও ৩০টি সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১৭০ এবং ১০টি সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৫২ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

মেয়র পদের প্রার্থীরা হলেন, নগর বিএনপির সভাপতি সদ্য বিদায়ী মেয়র মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, জাতীয় পার্টির প্রার্থী যুব সংহতির নেতা ওয়াসিউর রহমান দোলন, ইসলামি আন্দোলনের সফিকুল ইসলাম, স্বতন্ত্র প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব ও মুরাদ মোর্শেদ। গতকাল বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র জমা দেন মহানগর বিএনপির সভাপতি মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে গিয়ে রিটার্নিং অফিসার সৈয়দ আমিরুল ইসলামের কাছে তিনি মনোনয়নপত্র জমা দেন। বৃহস্পতিবারই ছিলো রাসিক নির্বাচনের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও জমা দেয়ার শেষ দিন। এর আগে দুপুরে আ’লীগের প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, জাতীয় পার্টির প্রার্থী ওয়াসিউর রহমান দোলন, ইসলামি আন্দোলনের সফিকুল ইসলাম, স্বতন্ত্র প্রার্থী হাবিবুর রহমান ও মুরাদ মোর্শেদ মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। 

আন্দোলনের অংশ হিসেবে

নির্বাচনে অংশগ্রহণ :বুলবুল

রাজশাহী মহানগর বিএনপির সভাপতি ও বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল বলেছেন, বর্তমান সরকারের নির্যাতন আর অন্যায় অনাচারের মুখোশ উন্মোচন করতেই নির্বাচনে অংশ নিয়েছে বিএনপি। বর্তমানে দেশের সাধারণ মানুষ তাদের মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত। তাদের এই  মৌলিক অধিকার ফিরিয়ে দিতে আমরা যুদ্ধ শুরু করেছি। জনগণকে সাথে নিয়েই সে যুদ্ধে জয়ী হব আমরা ইনশআল্লাহ। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলনের অংশ হিসেবে এই নির্বাচন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজশাহী রিটার্নিং আফিসারের কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার পর সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি। এক প্রশ্নের জবাবে বিএনপির এ নেতা বলেন, নির্বাচন  কমিশনের প্রতি দেশের একটি ছোট্ট শিশুরও আস্থা নেই। বর্তমান নির্বাচন কমিশন একটি খাঁচায় আবদ্ধ। এই নির্বাচন কমিশনের অধীনে কোন নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে হবে তা আশা করা যায় না। তবে আমরা সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে লড়াই করে জয় ছিনিয়ে আনতে চাই। এই নির্বাচনে জয়ী হয়ে আমরা বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে মুক্ত করে আনবো। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও সাবেক মেয়র মিজানুর রহমান মিনু, রাজশাহী জেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাড. তোফাজ্জল হোসেন তপু, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. শফিকুল হক মিলন, মহানগর যুবদল সভাপতি আবুল কালাম আজাদ সুইট, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল আলম সমাপ্তসহ বিএনপির অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ। সাবেক মেয়র মিনু বলেন, এই নির্বাচন কমিশনের অধীনে কোন নির্বাচন সঠিকভাবে হয়নি। নির্যাতিত নেতা এবং মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে মনোনীত করেছে বিএনপি। আমরা জীবন বাজি রেখে হলেও তার জয় ছিনিয়ে আনবো।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ