ঢাকা, শুক্রবার 29 June 2018, ১৫ আষাঢ় ১৪২৫, ১৪ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বাগমারায় হাট-বাজারে অতিরিক্ত খাজনা আদায়ের অভিযোগ

বাগমারা (রাজশাহী) সংবাদদাতা : রাজশাহীর বাগমার উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজারে অতিরিক্ত হারে খাজনা (টোল) আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সরকার নির্ধারিত হারের চেয়ে অতিরিক্ত খাজনা নেয়ায় আদায়কারীদের সাথে ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে বাকবিতন্ডা নিত্য নৈমিত্তি ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। এধারাবাহিকতায় গতকাল মঙ্গলবার উপজেলার শিকদারী হাটে অতিরিক্ত খাজনা আদায়ের অভিযোগে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে স্থানীয় ব্যবসায়ী হামিরকুৎসা গ্রামের আজিজুর রহমান, জিয়াউর রহমানসহ কতিপয় ব্যবসায়ী অতিরিক্ত খাজনা আদায়ের অভিযোগ করেছেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইজারাদারের হয়রানীর বিষয় আমলে নিয়ে তাৎক্ষণিক ইজারাদারকে ডেকে বিষয়টি অবহিত ও অনিয়মের ব্যাপারে কঠোর সতর্ক করে দেন। 

জানা গেছে, উপজেলার ভবানীগঞ্জ, মোহনগঞ্জ, মচমইল, শিকদারী, মাদারীগঞ্জসহ বেশ কয়েকটি হাটে হাট ইজারাদার নিয়মতান্ত্রিক ভাবে হাটে কোন রকম খাজনা আদায়ের চার্ট বা তালিকা না টাঙ্গিয়ে ইচ্ছা মত অতিরিক্ত টোল আদায় করছেন। এতে করে প্রতিনিয়ত আদায়কারীদের সাথে ক্রেতা-বিক্রেতার বাকবিতন্ডা বাঁধে। ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দরা অভিযোগ করে বলেন, ভবানীগঞ্জ হাট গত বাংলা ১৪২৩ সনে যেখানে ৬০/৬৫ লক্ষ টাকা ইজারা মূল্য ছিল। সেখানে ১৪২৪ সনে মাত্র এক বছরের ব্যবধানে হাটের ইজারা মূল্য দাঁড়িয়েছে প্রায় কোটি টাকা। তাদের অভিযোগ কতিপয় অসাধু ইজারাদার নিজেদের মধ্যে অসম প্রতিযোগিতায় লিপ্ত হয়ে এক বছরের ব্যবধানে হাটের ইজারা মূল্য প্রায় দ্বিগুণ বৃদ্ধি করেছে। একই ভাবে শিকদারী হাটে বিগত দিনের চেয়ে অতিরিক্ত টাকা দিয়ে ইজারা নিয়ে কৃষক ও ব্যবসায়ীদের উপর লৌহার খড়গ মাথায় তুলেছে প্রভাবশালী ইজারাদাররা। হাটে অভিযোগকারী কৃষকসহ ব্যবসায়ীরা জাানান, চাকুরীজীবিদের বেতন কাঠামু পরিবর্তন হয়েছে কিন্তু কৃষি পণ্যের মূল্য বাড়েনি অথচ লাফিয়ে চলেছে কৃষি উপকরণের মূল্য। এবিষয়ে কেউ খোঁজ নেন না। একই ভাবে অতিরিক্ত ইজারা মূল্য আদায় করার জন্য সরকার নির্ধারিত মূল্যের তোয়াক্কা না করে এবং সরকারি খাজনার চার্ট হাটের উন্মুক্ত স্থানে না টাঙ্গিয়ে সাধারণ ব্যবসায়ী ও হাটে আগত বিভিন্ন ক্রেতা বিক্রেতাদের হয়রানী নির্যাতন করে অতিরিক্ত হারে খাজনা আদায় শুরু করেছে প্রভাবশালীরা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ