ঢাকা, রোববার 1 July 2018, ১৭ আষাঢ় ১৪২৫, ১৬ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

গত ছয় মাসে পারিবারিক নির্যাতনে ১৪৪ নারীর মৃত্যু ॥ ধর্ষণের পর হত্যা ৩৭ জনকে

স্টাফ রিপোর্টার : চলতি বছরের জানুয়ারি  থেকে জুন মাস পর্যন্ত ধর্ষণের শিকার হয়েছেন ৪২৭ নারী। ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে ৩৭ জন নারীকে। এ সময়ে পারিবারিক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন ২০৪ নারী। এর মধ্যে ১৪৪ জন নারীকে হত্যা করা হয়েছে।
আইন ও সালিশ  কেন্দ্রের (আসক) চলতি বছরের ছয় মাসের পরিসংখ্যান নিয়ে মানবাধিকার লঙ্ঘন-সংক্রান্ত প্রতিবেদনে এ তথ্য উল্লেখ করেছে। আটটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত সংবাদ এবং আসকের নিজস্ব সংগৃহীত তথ্যের ভিত্তিতে সংখ্যাগত প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়েছে।
এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এই ছয় মাসে ৮৫৬ জন শিশু বিভিন্ন ধরনের নির্যাতন ও হত্যার শিকার হয়েছে। এর মধ্যে ১৪৮ শিশু হত্যার শিকার হয়েছে। ৫৮ শিশু আত্মহত্যা করেছে। নিখোঁজের পর আটজন শিশু এবং বিভিন্ন সময়ে ৫৩ শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ধর্ষণের ফলে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে গর্ভপাতের সময় মৃত্যু হয়েছে একজনের। এ ছাড়া রহস্যজনকভাবে মৃত্যু হয়েছে ১৫ শিশুর।
প্রতিবেদন অনুযায়ী, গত ছয় মাসে ধর্ষণের পর এবং ধর্ষণচেষ্টার পর আত্মহত্যা করেছেন চার নারী। এ ছাড়া ধর্ষণের  চেষ্টা চালানো হয়েছে ৫৭ নারীর ওপর। যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন ৫৮ জন নারী। এর মধ্যে যৌন হয়রানির কারণে তিনজন আত্মহত্যা করেছেন। যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করতে গিয়ে চারজন পুরুষ নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া হয়রানি ও লাঞ্ছনার শিকার হয়েছেন ৬৯ জন নারী-পুরুষ। পারিবারিক নির্যাতনের কারণে আত্মহত্যা করেছেন ৩০ নারী। এ ছাড়া শারীরিকভাবে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন ৩০ নারী। যৌতুককে কেন্দ্র করে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন ১১২ নারী। যৌতুকের জন্য শারীরিক নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে ৪৪ জনকে। যৌতুকের কারণে নির্যাতনের শিকার হয়ে আত্মহত্যা করেছেন চারজন নারী। ছয় মাসে ২৫ গৃহকর্মী বিভিন্ন ধরনের নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। অ্যাসিডসন্ত্রাসের শিকার হয়েছেন ১৪ জন নারী। সালিস ও ফতোয়ার মাধ্যমে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন তিনজন নারী।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ