ঢাকা, সোমবার 2 July 2018, ১৮ আষাঢ় ১৪২৫, ১৭ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তেলবাহী কন্টেইনার ট্রেন লাইনচ্যুত ॥ ১৫ ঘন্টা ট্রেন চলাচল ব্যাহত

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংবাদদাতা : ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথের ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তেলবাহী একটি কন্টেইনার ট্রেন লাইনচ্যুত হওয়ার ঘটনায় ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-সিলেট পথে প্রায় ১৫ ঘন্টা ট্রেন চলাচল ব্যাহত হয়। এ সময় কন্টেইনার থেকে প্রচুর তেল (ডিজেল) পড়ে যায়। এদিকে কন্টেইনার ট্রেন লাইনচ্যুতের কারণে ট্রেনের নির্ধারিত সময়সূচি ভেঙ্গে যায়। কোনো কোনো ট্রেন কয়েক ঘন্টা বিলম্বে চলাচল করে। এতে যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়।
এদিকে দুর্ঘটনা তদন্তে  পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটিকে আগামী পাঁচ কার্যদিনের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।
রেলওয়ের বিভাগীয় সহকারী পরিবহন কর্মকর্তা মোঃ রেজাউল হককে তদন্ত কমিটির প্রধান করা হয়। তবে দুর্ঘটনার কারণ সম্পর্কে কেউ নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারেন নি।
রেলওয়ে সূত্র জানায়, গত শনিবার রাত ১০ টার দিকে ঢাকাগামী একটি তেলবাহী কন্টেইনার ট্রেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর এলাকার শিমরাইলকান্দি এলাকায় এসে বিকট শব্দে ট্রেনের ৯টি কন্টেইনার লাইনচ্যুত হয়। এতে কন্টেইনারে থাকা ডিজেল পড়তে থাকে। খবর পেয়ে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও রেলওয়ের লোকজন ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। উদ্ধার কাজ করতে আখাউড়া থেকে আসে একটি রিলিফ ট্রেন।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, একেকটি বগিতে ৩৪ হাজার ৭৩১ লিটার ডিজেল ছিল। খবর পেয়ে জেলা প্রশাসকসহ  জেলা প্রশাসন ও রেলওয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
দুর্ঘটনার পর আপ লাইন বন্ধ থাকলেও ডাউন লাইন দিয়ে ট্রেন চালানো হয়। পরে আখাউড়া থেকে উদ্ধারকারি ট্রেন এসে কাজ শুরু করলে ডাউন লাইনেও ট্রেন চলাচল বন্ধ রাখা হয়।
গতকাল রোববার দুপুর একটার দিকে উদ্ধার কাজ শেষ হলে উভয় পথে (আপ-ডাউন) ট্রেন চলাচল শুরু হয়। এর আগে এক লাইনে ট্রেন চলাচলের কারণে চট্টগ্রামগামী মহানগর, ঢাকাগামী উপকূল এক্সপ্রেস, ময়মনসিংগামী বিজয় এক্সপ্রেস ট্রেন বিলম্বে চলাচল করে।   
রাতে ঘটনাস্থলে থাকা ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) মোঃ ইশতিয়াক আহমেদ ও রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মোঃ সানাউল হক জানান, তেল পড়ে যাওয়ার যে কোনো ধরণে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়। আখাউড়া থেকে রিলিফ ট্রেন এসে রাতেই উদ্ধার করা শুরু করে।
এ ব্যাপারে তদন্ত কমিটির প্রধান সহকারী পরিবহন কর্মকর্তা মোঃ রেজাউল হক জানান, রেলপথ, তেলসহ সংশ্লিষ্ট আর কি কি ক্ষতি হয়েছে তা নিরুপণ করা হবে। প্রাথমিক কাজ হিসেবে আগে রেললাইন থেকে দুর্ঘটনা কবলিত বগি সরিয়ে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক করা হয়।  

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ