ঢাকা, সোমবার 2 July 2018, ১৮ আষাঢ় ১৪২৫, ১৭ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

টাইব্রেকারে ডেনমার্ককে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে ক্রোয়েশিয়া

ক্রোয়েশিয়া  ৩ (১): ডেনমার্ক  ২ (১)

কামরুজ্জামান হিরু: শ্বাসরুদ্ধকার ম্যাচে  টাইব্রেকারে ডেনমার্ককে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করলো ক্রোয়েশিয়া। প্রাণপণ লড়াই করেও শেষ রক্ষা হয়নি ডেনমার্কের।টাইব্রেকারে ৩-২ গোলে হেরে বিদায় নিতে হলো তাদের। কোয়ার্টার ফাইনালে ক্রোয়েশিয়ার প্রতিপক্ষ স্বাগতিক রাশিয়া।দুই ইউরোপিয়ান দলের লড়াইটি দারুন উপভোগ করলো ফুটবল বিশ্ব। ম্যাচের নির্ধারিত ও অতিরিক্ত সময়ের খেলা ১-১ গোলে ড্র ছিলো। ফলে খেলার ভাগ্য নির্ধারিত হয় টাইব্রেকারে। বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ডের চতুর্থ ম্যাচে তুমুল উত্তেজনা দেখল সবাই। ইউরোপের শক্তিশালী দল ক্রোয়েশিয়ার সাথে সমান তালেই লড়াই করেছে আরেক ইউরোপিয়ান দেশ ডেনমার্ক। গ্রুপ পর্বে তিন ম্যাচের তিনটিতে জিতে চ্যাম্পিয়ন হয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে আসে ক্রোয়েটরা। অন্যদিকে, গ্রুপে অপরাজিত থাকলেও মাত্র একটি ম্যাচেই জয়ের হাসি হাসতে পেরেছিল ডেনমার্র্ক। ম্যাচের শুরু থেকেই ছিল আক্রমণ এবং পাল্টা আক্রমণ। কিন্তু সবাইকে অবাক ম্যাচের মাত্র ৫৭ সেকেন্ড গোল করে ডেনমার্ককে এগিয়ে নেন ইয়ার্গেনসেন। ডেলায়নির পাস থেকে ডি বক্সের ভেতর জটলা থেকে নেওয়া শট ক্রোয়েট গোলরক্ষক সুবাসিচের পায়ে লেগে জালে জড়ালে কোন কিছু বোঝার আগেই গোল খেয়ে বসে ক্রোয়েশিয়া। তবে সমতায় ফিরতেও সময় নেয়নি ক্রোয়েশিয়া। ৩ মিনিটের মাথায় মানজুকিচ দারুণ এক গোল করলে তিন মিনিটের ভেতরেই দুই গোল দেখে বসে নভগর্দ স্টেডিয়ামের সবাই। প্রথমার্ধে ৫৮ শতাংশ বল নিজেদের দখলে নিলেও আর কোন গোলের দেখা পায়নি ক্রোয়েশিয়া। ফলে ১-১ সমতায় থেকেই বিরতিতে যায় দু’দল। দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকে বল নিজেদের দখলে নিয়ে খেলতে থাকে ডেনমার্ক। ৮৪ মিনিটে ক্রোয়েশিয়ার ইন্টার মিলান তারকা পেরেসিচের হেড ডেনিস গোলরক্ষকের হাতে লেগে ক্রসবারে প্রতিহত হলে একটুর জন্য উল্লাসে মাতা হয়নি কয়েকদিন আগেই আর্জেন্টিনাকে হারানো ক্রয়েটদের। ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ের দুই মিনিটের মাথায় রাকিতিচের লক্ষ্যভ্রষ্ট শট কেবল হতাশাই বাড়ায়। ম্যাচে আর কেউ গোল না পেলে ১-১ সমতায় থেকে নির্ধারিত সময়ের খেলা।

অতিরিক্ত সময়ের সবচেয়ে নাটকীয় মুহুর্ত এলো ১১৬ মিনিটে। মদ্রিচের পাসটা রেবিচ গোল দেওয়ার আগে তাঁকে বক্সে ফাউল করা হয়। কিন্তু পেনাল্টি থেকে গোল করতে পারেননি, ঠেকিয়ে দিয়েছেন স্মাইকেল। সুবর্ণ সুযোগ হারাল ক্রোয়েশিয়া।

টাইব্রেকার শুরু হলো নাটক দিয়ে। এরিকসেনের শট ঠেকিয়ে দিলেন ক্রোয়েশিয়ার সুবাসিচ, আবার ক্রোয়েশিয়ার বাদেলের শট ঠেকিয়ে দিলেন স্মাইকেল। পরের দুই শটে গোল দিলেন ডেনমার্কের সাইমন শার ও ক্রন দেলি। ক্রোয়েশিয়ার হয়ে গোল করলেন ক্রামারিচ ও মদ্রিচ।কিন্তু চার নম্বর পেনাল্টিতে গিয়ে আবার নাটক। এবার ডেনমার্কের  শোন গোল করতে পারলেন না,কিন্তু স্মাইকেলও পরেরটি ঠেকিয়ে দিলেন।পাঁচ নম্বর পেনাল্টিতে গিয়ে এবার সুবাসিচ ঠেকিয়ে দিলেন ইয়োর্গেনসেনকে। শেষ স্পটকিক নিতে এলেন রাকিতিচ, গোল করে আনন্দে ভাসালেন দলকে। ক্রোয়েশিয়া উঠে গেল শেষ আটে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ