ঢাকা, মঙ্গলবার 3 July 2018, ১৯ আষাঢ় ১৪২৫, ১৮ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নেত্রকোনায় তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে যুবকের লাথিতে মাঝির মৃত্যু

নেত্রকোনা সংবাদদাতা : নেত্রকোনার বারহাট্টায় ফেরি পারাপার নিয়ে তুচ্ছ ঘটনায় রাজিব মিয়ার (২৩) লাথিতে আলী আকবর (৫২) নামে এক মাঝির মৃত্যু হয়েছে। রোববার বিকেলে রাজিবের বোন পারভিন আক্তারকে (৩০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নিহত মাঝি আলী আকবর সিংধা গ্রামের উমেদ আলীর ছেলে। রাজিব মিয়া একই গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হেকিমের ছেলে।
এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, শনিবার রাত ৮টার দিকে ফেরি পারাপার নিয়ে মাঝি আলী আকবরের সাথে রাজিব মিয়ার কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে রাজিব উত্তেজিত হয়ে আলী আকবরকে খিল-ঘুঁষিসহ বুকে লাথি মারলে তিনি মাটিতে পড়ে অজ্ঞান হয়ে যান।
স্থানীয়রা ঘটনাস্থল থেকে অচেতন অবস্থায় আলী আকবরকে উদ্ধার করে পাশের মোহনগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
বারহাট্টা থানার ওসি মো মেজবাহ্ উদ্দিন বলেন, নিহত মাঝি আলী আকবরের স্ত্রী আকলিমা বেগম বাদী হয়ে চারজনকে আসামী করে থানায় হত্যা মামলা দিয়েছেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।
আসামীরা হলেন রাজিব মিয়া, তার ভাই শাহীন মিয়া (৩৪), বোন পারভিন আক্তার (৩০) ও মা ফুলেছা বেগম (৫৫)।
অভিভাবকের ঘুষিতে প্রধান শিক্ষকের মৃত্যু : নেত্রকোনার কলমাকান্দায় এক ছাত্রের অভিভাবকের ঘুষিতে প্রধান শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন দুলালের (৫০) মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। রোববার রাত ১০টায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (মমেক) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।
এর আগে এদিন সকালে কলমাকান্দার উদয়পুর মিতালী উচ্চ বিদ্যালয়ে ঘুষি দেয়ার ঘটনা ঘটে। দেলোয়ার হোসেন দুলাল কলমাকান্দার পোগলা গ্রামের মৃত মো মহিম উদ্দিনের ছেলে।
ওই উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি মোনায়েম তালুকদার জানান, দেলোয়ার হোসেন মৃত্যুর আগে জানিয়েছিলেন- ৭ম শ্রেণির ছাত্র মারুফ আহমেদকে মাসিক পরীক্ষার ফি এনে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে বলায় মারুফের বাবা চাঁন মিয়া ক্ষিপ্ত হন। এরপর চাঁন মিয়া ও তার কয়েকজন স্বজন মিলে বিদ্যালয়ে গিয়ে ওই শিক্ষকের সঙ্গে বাকবিত-ায় জড়িয়ে পড়েন।
এক পর্যায়ে চাঁন মিয়া প্রধান শিক্ষকের বুকে স্বজোরে ঘুষি দেন। এতে প্রধান শিক্ষক অসুস্থ হলে চিকিৎসার জন্য প্রথমে কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে নেয়া হয় মমেক হাসপাতালে। সেখানেই তার মৃত্যু হয়।
কলমাকান্দা থানার ওসি একেএম মিজানুর রহমান জানান, এ ঘটনায় অভিযোগ পেলে থানায় মামলা নেয়া হবে। মমেক হাসপাতালেই লাশের ময়নাতদন্ত হবে বলেও জানান ওসি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ