ঢাকা, বুধবার 4 July 2018, ২০ আষাঢ় ১৪২৫, ১৯ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৪৫তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

কেশবপুর (যশোর) সংবাদদাতা: আধুনিক বাংলা সাহিত্যের পথিকৃৎ মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৪৫ তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে কবির জন্মস্থান  সাগরদাঁড়িতে শুক্রবার দিনব্যাপী  শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে ও মধুসূদন একাডেমির সহযোগিতায় কবি সমাবেশ, মধুসূদন একাডেমি পুরস্কার প্রদান, আলোচনা সভা, আবৃতি, নাটক ও  সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।  মৃত্যুবার্ষিকী ঘিরে সাগরদাঁড়ি পরিণত হয় দুই বাংলার কবি ও সাহিত্যিকদের মিলনমেলায়। কবির জন্মস্থান কপোতাক্ষ নদের তীরবর্তী সাগরদাঁড়ির মধুপল¬ীতে কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজানূর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন যশোরের জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল। মুখ্য আলোচক ছিলেন, বাংলাদেশ টেলিভিশনের পরিচালক (বার্তা) কবি নাসির আহমেদ।  বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক কবি ও গবেষক ড. মোস্তফা তারিকুল আহসান, খুলনা সরকারী বি এল কলেজের প্রাক্তন অধ্যাপক প্রফেসর আব্দুল মান্নান, প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তরের আঞ্চলিক পরিচালক আফরোজা খান মিতা, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক ড. তানভির দুলাল, কলকাতার অভিনেতা ও বাচিক শিল্পী রামগোপাল চট্টোপাধ্যায়। মনিকা আইচের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আলোচনায় আরো অংশ নেন কবি ও অনুবাদক সুহৃদ সরকার, কবি ও সাংস্কৃতি সংগঠক কাসেদুজ্জামান সেলিম, কেশবপুর শিল্পকলা একাডেমির সদস্য অ্যাডভোকেট আবু বক্কার সিদ্দিকী, কেশবপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি আশরাফ-উজ-জামান খান ও  সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসাইন, সাগরদাঁড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী মুস্তাফিজুল ইসলাম মুক্তো প্রমুখ। অনুষ্ঠানে মধুসূদন একাডেমি পুরস্কার গ্রহণ করেন এবং বক্তব্য রাখেন  বাংলা একাডেমির সহকারী পরিচালক ড. সাইমন জাকারিয়া। মাইকেল মধুসূদন দত্তের অমর সৃষ্টি ‘মেঘনাধবধ কাব্য’ অবলম্বনে মেঘনাধ বধের পর নাটক রচনা এবং তা বর্হিঃবিশ্বে উপস্থাপন করায় তাকে চলতি বছরের মধুসূদন একাডেমি পুরস্কার প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কেশবপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি):মো. কবীর হোসেন ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন মধুসূদন একাডেমির পরিচালক খন্দকার খসরু পারভেজ। অনুষ্ঠানে দুই বাংলার আগত কবিরা মধুসূদনের কাব্য থেকে আবৃতি এবং মধুসূদন বিষয়ক শ্রুতি নাটক উপস্থাপন করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ