ঢাকা, বৃহস্পতিবার 5 July 2018, ২১ আষাঢ় ১৪২৫, ২০ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

এবার পৌর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতিসহ মা-বোনকে পিটিয়ে জখম

চুয়াডাঙ্গা সংবাদদাতা : চুয়াডাঙ্গার জীবননগর ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আবারও উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে শহর। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতিসহ মা বোনকে পিটিয়ে জখম ও বাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটেছে।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার সময় মোটরসাইকেল যোগে একদল ব্যক্তি অস্ত্র ও লাঠি শোটা নিয়ে চোরপোতা তেতুলিয়া গ্রামের বদরউদ্দিনের ছেলে জীবননগর পৌর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি রাজিবকে খুঁজতে আসে এবং রাজিবকে দোকানের সামনে পেয়ে তার মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে তুলে নিয়ে যাওয়ার জন্য চেষ্ঠা করে। এ সময় রাজিবের মা রিজিয়া খাতুন (৬০) খালা সুফিয়া এবং বোন রুবিনা রাজিবকে নিয়ে যেতে বাধা দিলে তাদের পিটিয়ে আহত করাসহ তার বাড়িতে হামলা করার অভিযোগ উঠেছে জীবননগর ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি অনিক, সাধারণ স¤পাদক বিপ্লবসহ বেশ কয়েক জনের বিরুদ্ধে।
আহত ছাত্রলীগ নেতা রাজিব অভিযোগ করে বলেন, আমি মঙ্গলবার সন্ধ্যার সময় আমাদের দোকানে বসে ছিলাম এ সময় জীবননগর ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি অনিক, স¤পাদক বিপ্লব, ছাত্রলীগ নেতা শুভ, মামুন, অমিত সহ ৮-১০ জন ব্যাক্তি মোটরসাইকেল যোগে লাঠি, শোটা নিয়ে আমার দোকানে আসে এবং আমাকে জোরপূর্বক দোকান থেকে মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্ঠা করে। এ সময় আমি তাদের সাথে যেতে রাজি না হওয়ায় বিপ্লব আমার মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্ঠা করলে আমি আত্মরক্ষায় চিৎকার করি। এ সময় আমার বাড়ি থেকে আমার মা,বোন ও খালা বের হয়ে আমাকে তাদের হাত থেকে রক্ষা করতে চেষ্টা করলে ওরা আমার মা, বোনও খালাকে মারধর করে এবং আমার বাড়িতে হামলা করে। এ সময় আমাদের চিৎকারে শুনে স্থানীয় জনগন ছুটে এলে তারা পালিয়ে যায় এবং স্থানীয় জনগন আমাদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করে।
এ ব্যাপারে জীবননগর ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ স¤পাদক বিপ্লব জানায়, আমার এবং অনিকের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ তুলেছে তা ঠিক নয়। আমরা কেউ তার পরিবারের কাউকে মারধর সহ তার বাড়িতে হামলা করিনি আর অস্ত্রের যে কথা বলেছে তা স¤পন্ন মিথ্যা বলেছে।
জীবননগর থানার ওসি মাহমুদুর রহমান জানান, ছাত্রলীগ নেতাসহ তার পরিবারের সদস্যাদের উপর হামলার বিষয়টি শুনেছি এটি এমপি স্যারকে জানিয়েছি, তিনি এটি সমাধান করার আশ্বাস দিয়েছে।
এ দিকে দফায় দফায় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় গোটা শহরে আতঙ্ক বিরাজ করছে। প্রতিনিয়ত বিকাল হতে না হতেই শহরে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র, লাঠি, রড নিয়ে শহরে মহড়া দেওয়ায় বাজারের ব্যবসায়ীসহ সাধারণ মানুষরা আতংকিত হয়ে পড়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ