ঢাকা, শনিবার 7 July 2018, ২৩ আষাঢ় ১৪২৫, ২২ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

২০২০-২১ সালকে ‘মুজিব বছর’ হিসেবে পালন করা হবে -প্রধানমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ২০২০-২১ সালকে ‘মুজিব বছর’ হিসেবে পালন করা হবে। গতকাল  শুক্রবার রাজধানীর ২৩ বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের উপদেষ্টা পরিষদ ও কেন্দ্রীয় কার্যনিবাহী কমিটির যৌথসভায় তিনি এসব কথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির জনকের জন্মশত বার্ষিকী ২০২০ সালে এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তী ২০২১ সাল। বছরব্যাপী কর্মসূচি নিয়ে উদযাপিত হবে ‘মুজিব বছর’। কর্মসূচি হিসেবে দেশব্যাপী বিষয়ভিত্তিক প্রতিযোগিতা, যার মূল উদ্দেশ্য থাকবে মানুষের মধ্যে সচেতনা জাগ্রত করা।
শেখ হাসিনা বলেন, পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট দেশ ও জাতির জন্য দুর্ভাগ্য। এরপর চলে অবৈধ ক্ষমতা দখল। উন্নয়নের ধারাবাহিকতাকে থামিয়ে সন্ত্রাস জঙ্গিবাদে এগিয়ে যায় শহিদের রক্তের ওপর দাঁড়ানো এই দেশ। স্বাধীনতা নেতৃত্বদানকারী দল আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে মুক্তিযুদ্ধের ধারায় এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। উন্নয়নশীল দেশের স্বীকৃতি নিয়ে এখন উন্নতির পথে এগুচ্ছে। আজ বাংলাদেশের স্যাটেলাইট মহাকাশে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, অনেকের চোখে সরকারের উন্নয়ন ভালো লাগে না। তারা গরিব থাকবে তা দেখিয়ে বিদেশ থেকে টাকা আনবে। আবার কেউ দরিদ্রদের লোন দিয়ে নিজেদের ভাগ্য গড়বে। কিন্তু দেশের উন্নয়নে তাদের সুযোগ সীমিত হয়ে মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হচ্ছে। শিক্ষার গুরুত্ব অনুধাবন করছে মানুষ। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।
আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘আমরা চাই এ দেশের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন, এর সাথে উন্নত-সমৃদ্ধশালী হবে। সরকার শোষিতের পক্ষে এখন কাজ করছে। দেশের একটা মানুষ ঘরহারা নেই।’
গত ২৩ জুন দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিনে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের নতুন ভবন উদ্বোধন করা হয়। গতকাল প্রথমবারের মতো উপদেষ্টা পরিষদ ও কেন্দ্রীয় কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দলীয় কার্যালয়ে আসার আগে ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগ, যুবমহিলা লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ দলের সহযোগী ও অঙ্গসংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা নানা অভিধায় অভিহিত করে নেত্রীকে সাধুবাদ জানান। নেতাকর্মীদের আগমণে সাজ সাজ রব বিরাজ করে দলের নতুন কার্যালয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ