ঢাকা, শনিবার 7 July 2018, ২৩ আষাঢ় ১৪২৫, ২২ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বেগম খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রীর প্রতিহিংসার শিকার

চট্টগ্রাম ব্যুরো: বিএনপির কেন্দ্রীয় সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডাঃ শাহাদাত হোসেন বলেছেন, সাজানো মামলায় অন্যায়ভাবে সাজা দিয়ে কারাগারে বন্দী  রাখা হয়েছে বেগম খালেদা জিয়াকে। বেগম খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার প্রতিহিংসা ও জিঘাংসার শিকার। তিনি ৫ জুলাই বৃহস্পতিবার বিকালে চট্টগ্রামের কাজীর দেউরী নাসিমনভবনস্থ বিএনপি চট্টগ্রাম মহানগর দলীয় কার্যালয় মাঠে বেগম খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিত করার প্রতিবাদে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির উদ্যোগে কেন্দ্র ঘোষিত প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
ডা. শাহাদাত বলেন, হাইকোর্ট জামিন দিলে সে জামিন স্থগিত করা হয় এমন ঘটনা আগে কখনো ঘটেনি। শেখ হাসিনা জোর করে ক্ষমতায় আছে বলেই বিচারিক প্রক্রিয়ায় ন্যায় বিচার বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।
তিনি আরো বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে আইনী প্রক্রিয়ায় আদৌ মুক্ত করা যাবে কিনা তা নিয়ে সংশয়ের সৃষ্টি হয়েছে। বর্তমানে যে আইনী প্রক্রিয়া চলছে এবং যে ধরনের আদেশ দেয়া হচ্ছে তাতে মনে হচ্ছে সরকারের ইচ্ছারই প্রতিফলন ঘটছে। কোন রকম ন্যায় বিচার পাবে এ বিশ্বাস দিন দিন ক্ষিণ হয়ে আসছে। বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার ব্যবস্থা না নেয়ায় তার শারীরিক অবস্থা আরো সংকটময় হয়ে ওঠেছে। সরকার বেগম খালেদা জিয়াকে জেল খানায় তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে।
মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর বলেছেন, সরকার ও দুদক পরিকল্পিতভাবে সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানেয়াট নাটক মঞ্চস্থ করে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে সাজা দিয়ে কারান্তরিন করে রেখেছে। অবৈধ সরকার বিভিন্ন অজুহাতে ও কাল্পনিক মামলা দিয়ে বেগম জিয়ার জামিন প্রক্রিয়াকে একের পর এক বাধা সৃষ্টি করছে। তিনি বলেন, সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহাকে সরকার জোর করে অব্যাহতি প্রদানের মাধ্যমে অন্য সব প্রতিষ্ঠানের মত দেশের বিচার বিভাগও আজ পরাধীনতার শৃংখলে বন্দি। শৃংখলিত বিচার বিভাগ থেকে বেগম খালেদা জিয়া কেন? দেশের একজন সাধারণ নাগরিকও ন্যায় বিচার আশা করতে পারেন না।
সিনিয়র সহসভাপতি আবু সুফিয়ান বলেন, সরকারের নির্দয়-নিষ্ঠুর আচরণে এটি সুস্পষ্ট যে, তারা জোর করে ক্ষমতা ধরে রাখতে চায়। আর এজন্য গণতন্ত্রকে নি:শেষ করে ফেলছে। তাই মিথ্যা ও সাজানো মামলায় কারাবন্দী সম্পূর্ণ নির্দোষ দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে চলমান আন্দোলনকে দমন করার উদ্দেশ্যেই বিএনপির নেতাকর্মীদের ওপর জুলুম নির্যাতন এবং গ্রেফতার করা হচ্ছে। কিন্তু এসব নিপীড়ন করে সরকার যেমন জনগণের রোষ থেকে রেহাই পাবে না তেমনি দেশনেত্রীর মুক্তি আন্দোলনকেও বাধাগ্রস্ত করতে পারবে না। বালির বাঁধ দিয়ে সমুদ্রের জোয়ার কখনো রুখা যায় না।
প্রতিবাদ সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপি‘র সহসভাপতি মো: মিয়া ভোলা, হাজী মো: আলী, হারুন জামন, সৈয়দ আহামদ, কামাল উদ্দিন কন্ট্রা:, ইকবাল চৌধুরী, এস এম আবুল ফয়েজ, উপদেষ্টা জাহিদুল করিম কচি, নবাব খান, বিএনপি নেতা এস এম সাইফুল ইসলাম, মো: শাহ আলম, ইসকান্দর মির্জা, আর ইউ চৌধুরী শাহীন, ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, আবদুল মান্নান, কাউন্সিলর আবুল হাশেম, আনোয়ার হোসেন লিপু, মনজুর আলম চৌধুরী মনজু, কামরুল ইসলাম, মো: সালাউদ্দিন, ইব্রাহীম চৌধুরী প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ