ঢাকা, শনিবার 7 July 2018, ২৩ আষাঢ় ১৪২৫, ২২ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ব্রাজিলকে হারিয়ে বেলজিয়াম সেমিফাইনালে

বেলজিয়াম ২ : ব্রাজিল ১

কামরুজ্জামান হিরু: পারলনা ব্রাজিল শিরোপা লড়াইয়ে টিকে থাকতে। বেলজিয়ামের কাছে ২-১ গোলে হেরে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নিতে হলো পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের। আর সেমিফাইনালে উঠলো বেলজিয়ামের ‘সোনালী প্রজন্ম’। সেমিফাইনালে বেলজিয়ামে প্রতিপক্ষ ফ্রান্স। মাঠটি যেন ফেভারেটদের বিপক্ষে। কাকতালিয় হলেও সত্যি কাজান অ্যারেনা থেকেই পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলের আগে বিদায় নিতে হয়েছে সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা,জার্মান। দক্ষিণ কোরিয়ার কাছে হেরে গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিয়েছিল বর্তমান চ্যাম্পিয়ন জার্মানি। শেষ ষোলোতে ফ্রান্সের কাছে হেরে স্বপ্ন ভেঙ্গেছে মেসির আর্জেন্টিনার। এখানেই রচিত হলো ব্রাজিলের বিদায়ের কাব্য।

হাই ভোল্টেজ ম্যাচের মূল নায়ক আসলে বেলজিয়ামের গোলরক্ষক থিবাউ কুরতোয়া। ম্যাচের শেষ দিকে রেনাতো আগুস্তোর গোলে যখন ব্যবধান কমালো ব্রাজিল, তখন থেকেই ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার মরিয়া হয়ে উঠে সেলেসাওরা। ম্যাচের শেষ বাঁশি বাজার ঠিক আগ মুহূর্তে নেইমার প্রায় গোল করেই ফেলেছিলেন কিন্তু কুরতোয়া এদিন যেনো গোলবারের সামনে দেয়াল হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন। নেইমারের প্রচেষ্টা এর আগেও একবার ঠেকিয়ে দিয়েছিলেন। পুরো ম্যাচেই তার অসাধারণ সেভের কারণেই গোলবঞ্চিত হয়েছেন নেইমার-জেসুসরা।

ব্রাজিল তাদের সেরা দল নিয়েও হারের যন্ত্রণায় বিদ্ধ হয়েছে। এর পেছনে দলের সেরা ডিফেন্ডার কাসেমিরোর অনুপস্থিতি বড় অবদান যেমন রেখছে তেমনি তার বদলে যিনি একাদশে ছিলেন সেই ফার্নান্দিনহোর আত্মঘাতী গোলও বড় অবদান রেখেছে। এটি কোচ তিতের অধীনে ব্রাজিলের দ্বিতীয় হার। রাশিয়া বিশ্বকাপে তারা ফেবারিট হিসেবেই এসেছিলো। কিন্তু বেলজিয়ামের কাছে সেই স্বপ্নের সমাপ্তি ঘটলো। ম্যাচের মাত্র ১৩ মিনিটেই তার আত্মঘাতী গোলে পিছিয়ে পড়ে ব্রাজিল। ম্যাচের ১৩ মিনিটে বেলজিয়ামের হয়ে কর্নার কিক করেন ডি ব্রুইনি। লাফিয়ে তাতে মাথা ছুঁয়াতে সমর্থ হন বেলজিয়াম ডিফেন্ডার ভিনসেন্ত কোমপানি। কিন্তু ব্রাজিলের ডিফেন্ডার ফার্নান্দিনহোর মাথায় লেগে বল ব্রাজিলের জালে ঢুকে গেলে আত্মঘাতী গোলে ১-০ ব্যবধানে পিছিয়ে যায় ব্রাজিল।

পিছিয়ে পড়ে গোল করার জন্য প্রচেষ্টা চালালেও তা ফলে পরিণত করতে ব্যর্থ হয় ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডরা। বিশেষ করে ইনজুরি থেকে ফিরে আসা মার্সেলোর বেশ কিছু প্রচেষ্টা যথাস্থানে ফিনিশারের অনুপস্থিতিতে অকার্যকর হয়ে যায়। উল্টো কোয়ার্টার ফাইনালে ব্রাজিলের শক্ত রক্ষণকে পরীক্ষায় ফেলে ২-০ গোলে এগিয়ে যায় বেলজিয়াম।ম্যাচের ৩১ মিনিটে কেভিন দে ব্রুইনির অসাধারণ গোলে ব্রাজিলের বিপক্ষে এগিয়ে যায় বেলজিয়ানরা। তবে গোলের পেছনে বড় অবদান রেখেছেন রোমালু লুকাকু। তার বাড়িয়ে বল থেকেই ব্রাজিলের ডি বক্সের ২০ গজ দূর থেকে দলের দ্বিতীয় গোলটি করেন দে ব্রুইনি।২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ে গোলের জন্য আক্রমণে উঠে আসে ব্রাজিল। ফলও আসে। কুতিনহোর ক্রস আগুস্তোর হেড থেকে করা ৭৬ মিনিটের গোলে ব্যবধান ২-১ এ নামিয়ে আনে ব্রাজিল। তবে ততোক্ষণে দেরি হয়ে গেছে। শেষ পর্যন্ত ওই ব্যবধান নিয়েই জিতে যায় বেলজিয়াম।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ