ঢাকা, শনিবার 7 July 2018, ২৩ আষাঢ় ১৪২৫, ২২ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কয়রা-কাশিরহাট রাস্তায় খানাখন্দ জনদুর্ভোগ চরমে

খুলনা অফিস : খুলনা জেলার সর্বদক্ষিণে সুন্দরবন উপকূলীয় জনপদ কয়রা উপজেলা সদর থেকে উত্তর বেদকাশির কাশিরহাট পর্যন্ত সড়ক ও জনপথ বিভাগের ৬ কিলোমিটার রাস্তা সংস্কারের অভাবে মানুষ ও যানবাহন চলাচলে চরম দুর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে। দেখা গেছে, অর্ধশতাধিক জায়গায় ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি হয়ে খানাখন্দে ভরে ওঠায় রাস্তার বেশিরভাগ স্থানে সব সময় গর্ত হয়ে থাকে। বর্ষা মওসুমে রাস্তায় পানি থাকায় মানুষের চলাচল মারাত্মক ঝুঁকিতে রয়েছে।
ইতোমধ্যে ইঞ্জিন চালিত ভ্যান, মোটরসাইকেল আরোহী, বাস, ট্রাক গর্তে পড়ে হেলেদুলে চলতে গিয়ে অনেক মানুষ প্রায় সময় দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে।
ভাঙ্গাচোরা রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন হাজারো মানুষ উপজেলা, জেলা সদরসহ দূর দূরান্তে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে। গুরুত্বপূর্ণ সওজের এ রাস্তাটি বিগত বর্ষাকাল শুরু আগে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ মেরামতের উদ্যোগ গ্রহণ করলেও শেষ পর্যন্ত বরাদ্দ না মেলায় মেরামত কাজে হাত দেয়া সম্ভব হয়নি। ফলে উত্তর ও দক্ষিণ বেদকাশি ইউনিয়ন দু’টির ৫০ হাজার মানুষের চলাচলের একমাত্র রাস্তাটির বেহাল দশায় উদ্বিগ্ন এলাকার জনসাধারণ।
এলাবাসীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, আইলার পর সর্বশেষ ২০১৩ সালে রাস্তাটি সংস্কার করা হয়েছিল। তবে অভিযোগ রয়েছে দায়সারাভাবে কাজ করা, নিম্নমানের বিটুমিন ব্যবহার ও থিকনেস কম দেয়ায় দুবছরের কম সময়ের মধ্যে সওজের রাস্তার কার্পেটিং নষ্ট হয়ে ধীরে ধীরে ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি হয়।
বেদকাশি ইউনিয়নের কাছারিবাড়ি বাজারের ব্যবসায়ী আকবর হোসেন ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এত খারাপ হলেও রাস্তাটি কেন সংস্কার করা হচ্ছেনা কেন তিনি বুঝে উঠতে পারছেনা।
এ ব্যাপারে কয়রা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আ, খ, ম তমিজ উদ্দিন বলেন, কয়রা সদর থেকে উত্তর বেদকাশির কাশিরহাট পর্যন্ত সওজের রাস্তাটি সংস্কারের ব্যাপারে জেলা উন্নয়ন সমন্বয় সভায় আলোচনা হয়েছে। চলতি অর্থবছরে গুরুত্বপূর্ণ এ রাস্তাটি মেরামতের সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ