ঢাকা, শনিবার 7 July 2018, ২৩ আষাঢ় ১৪২৫, ২২ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

অমানবিক!

শেখ মো: সামসুদ্দোহা, মাদারীপুর: মাদারীপুরে শ্রেণি কক্ষে হাসার কারণে শিক্ষিকার বেত্রাঘাতে ৫ম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর চোখ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষিকা দিল আফরোজ রতনাকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে জেলা শিক্ষা অফিস। এদিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য শিক্ষার্থী সম্পাকে মঙ্গলবার সকালে ঢাকায় নেয়া হয়েছে। আহত সম্পা শহরের পানিছত্র এলাকার সিরাজুল হক হাওলাদারের মেয়ে ও ৯১ নং দরগাখোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির ছাত্রী।
আহত শিক্ষার্থীর পরিবারের সদস্যরা মঙ্গলবার সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগে জানান, শহরের ৯১নং দরগাখোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বিরতির পর সোমবার দুপুরে শ্রেণিকক্ষে ক্লাস নিতে প্রবেশ করেন শিক্ষিকা দিল আফরোজ রতনা। শ্রেণিকক্ষে উপস্থিত থাকা সকলে দাঁড়িয়ে শিক্ষিকাকে সম্মান প্রদর্শন করে। এ সময় ৫ম শ্রেণির ছাত্রী সম্পা আক্তার (১১) দুষ্টুমিতে হেসে ফেলে। এতে শিক্ষিকা ক্ষিপ্ত হয়ে ওই ছাত্রীকে বেত্রাঘাত করেন। বেত্রাঘাতের এক পর্যায়ে শরীরের বাম চোখে মারাত্মক আঘাত লাগে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় সম্পাকে তার সহপাঠিরা বাসায় নিয়ে আসে। সেখান থেকে পরিবারের লোকজন মাদারীপুর চক্ষু হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে মঙ্গলবার সকালে উন্নত চিকিৎসার জন্য সম্পাকে ঢাকায় নেয়া হয়।
আহত শিক্ষার্থী সম্পা বলে, ম্যাডামকে মারতে নিষেধ করেছিলাম। কিন্তু ম্যাডাম শরীরের একাধিক স্থানে বেত দিয়ে পিটিয়েছে। আর দুষ্টুমি করবো না ম্যামকে বললেও ম্যাম আরো বেশি ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ