ঢাকা, রোববার 8 July 2018, ২৪ আষাঢ় ১৪২৫, ২৩ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

দুপচাঁচিয়া মাটিহাঁস সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দাতা সদস্য নিয়োগ নিয়ে উত্তেজনা

দুপচাঁচিয়া (বগুড়া) সংবাদদাতা : দুপচাঁচিয়া উপজেলার মাটিহাঁস সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির দাতা সদস্য নিয়োগকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে। এ সংক্রান্তে মকলেছার রহমান মন্ডল সম্প্রতি উপজেলা চেয়ারম্যানের নিকট লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।
প্রাপ্ত অভিযোগে জানা গেছে, উপজেলা সদরের মাটিহাঁস গ্রামের মরহুম আলহাজ্ব ছব্দের আলী মন্ডল এর ৪৯ শতক জমির উপর মাটিহাঁস সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি স্থাপিত হয়। ১৯৭৩ সালে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকে ম্যানেজিং কমিটির দাতা সদস্য হিসেবে ওই পরিবারেরই লোকজন দায়িত্ব পালন করে আসছে। ২০১৪ সালে বিদ্যালয়টির বর্তমান প্রধান শিক্ষক আব্দুস সামাদ তার বড় ভাই আক্কাছ আলীর নামে বিদ্যালয়ে ৩ শতক জায়গা দান করে। ওই বছরই তার বড় ভাই কে ম্যানেজিং কমিটির দাতা সদস্য হিসেবে নিয়োগ করা হয়। চলতি ২০১৮ সালে পুনরায় ম্যানেজিং কমিটির গঠনের শুরুতেই বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা পরিবারের সদস্য মকলেছার রহমান মন্ডল কে বাদ দিয়ে আবারো আক্কাছ আলী কে দাতা সদস্য হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। বিদ্যালয়টির প্রতিষ্ঠাতা ৪৯ শতক জমি দানকারী পরিবারকে বাদ দিয়ে ৩ শতক জমি দানকারী আক্কাছ আলী কে সম্পূর্ণ অনিয়মতান্ত্রিক ভাবে দাতা সদস্য হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগে এনে তা বাতিলের দাবি জানানো হয়েছে। এই দিকে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুস সামাদ জানান, বিদ্যালয়টিতে দুইটি পরিবারের জমি রয়েছে। কম জমির মালিক কে দাতা সদস্য নিয়োগ দেওয়া যাবে না এ সংক্রান্তে কোন পরিপত্র নেই। উপজেলা চেয়ারম্যান আইনগত ভাবেই আক্কাছ আলী কে দাতা সদস্য হিসেবে নিয়োগের সুপারিশ করেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ