ঢাকা, রোববার 8 July 2018, ২৪ আষাঢ় ১৪২৫, ২৩ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

গৃহবধুকে পিটিয়ে হত্যা

মুহাম্মাদ আল-আমিন হোসাইন, নাজিরপুর (পিরোজপুর): পিরোজপুরের নাজিরপুরে এক অসহায় গৃহবধুকে পিটিয়ে হত্যার পর স্থানীয় ইউপি সদস্যের সহায়তায়  কোন মামলা ছাড়াই সমাহিত করা হয়েছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য ও  প্রভাবশালীদের সহায়তায় ধামা চাপা  দেয়ার  চেষ্টা চলছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার  শ্রীরামাকাঠী ইউনিয়নের বলিবাবলা গ্রামে।  জানা  গেছে, ওই গ্রামের প্রতিবন্ধী বিধান ঢালী (৩৫) ও তার মা  শোভা ঢালী (৬০) কে জমিজমা নিয়ে বিরোধের  জের ধরে গত ৩১  মে  বেধম মারধর করে একই  গ্রামের মহাদেব ঢালী ও তার ভাই জয়দেব  ঢালী সহ ৫/৬ জনে। এ হামলার ৪ সপ্তাহ পর আহত মা  শোভা ঢালী  নিহত হন। নিহত  শোভা ঢালীর প্রতিবন্ধী পুত্র বিধানের স্ত্রী সন্ধ্যা ঢালী জানান, হামলার পরে  ওই দিনই  গুরুতর আহত  তার শ্বাশুড়ী ও স্বামীকে  উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে এ ব্যাপারে তিনি (সন্ধ্যা) বাদী হয়ে থানায় একটি অভিযোগ দিলেও স্থানীয় ৭নং ওংয়ার্ড ইউপি সদস্য  সুদেব হালদার তা মীমাংশা করে  দেয়ার আশ্বস   দিয়ে মামলা তুলে  নিতে চাপ  দেন। কিন্তু মীমাংশা না করে মিথ্যা মীমাংশার   আশ্বাস দিয়ে আহত শ্বাশুড়ী ও স্বামীকে জোর করে হাসপাতাল  থেকে বাড়িতে  নিয়ে আসেন। কিন্তু চিকিৎসা ছাড়া  গত মঙ্গলবার রাতে বাড়িতে বসে তার মৃত্যু হয়। কিন্তু আমাদের  কোন অভিভাবক না থাকায় ওই ইউপি সদস্য ও স্থানীয় প্রভাবশালীরা বিষয়টি ধাপা চাপা দিতে  কোন মামলা বা ময়না তদন্ত ছাড়াই সমাহিত করেন।  এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য জানান, তিনি বিষয়টি  চেয়ারম্যানকে জানালে  চেয়ারম্যান নির্দেশে ও থানা পুলিশের অনুমতি ক্রমেই দাফন করেছেন। তবে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা  মো. হাবিবুর রহমান জানান, তারা এ ব্যাপারে  কোন  তথ্য বা অভিযোগ  পান নি।  তিনি গত বৃহস্পতিবার রাতে এ খবর শুনে সেখানে গিয়েছেন। ভুক্তভোগীর পরিবারের  গৃহবধু সন্ধ্যা ঢালীকে আইনী সহায়তার জন্য আসতে বলা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ