ঢাকা,মঙ্গলবার 13 November 2018, ২৯ কার্তিক ১৪২৫, ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার পথে তরিকুল

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক:

ছাত্রলীগের হামলায় গুরুতর আহত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষার্থী ও কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা তরিকুল ইসলাম তারেককে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেয়া হচ্ছে।

শনিবার রাতে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে তাকে ঢাকায় স্থানান্তরের পরামর্শ দেন তারেকের তত্ত্বাবধানকারী চিকিৎসক ডা. সাঈদ আহমেদ।

রোববার সকালে একটি অ্যাম্বুলেন্সে তাকে নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হন তার স্বজন ও সহপাঠীরা।

চিকিৎসক ডা. সাঈদ আহমেদ বলেন, তারেকের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হচ্ছে না। তার পা এবং কোমরের হাড় মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তার পায়ে অস্ত্রোপচার করতে হবে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে স্থানান্তরের পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

তারেকের ছোট বোন ফাতেমা খাতুন বলেন, এক সপ্তাহ চিকিৎসার পরও তরিকুলের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়নি। পায়ে অস্ত্রোপচারের জন্য তারেক ভাইকে ঢাকায় পাঠানোর পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসক।

তিনি বলেন, কৃষক পরিবারের সন্তান আমরা। তরেক ভাইয়ের কাছে খুব কষ্ট করে জমিয়ে টাকা পাঠানো হতো। চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করা নিয়ে চিন্তিত আছি। তবে ভায়ের সহপাঠি ও সবার সহযোগিতায় এখন পর্যন্ত চলছে। সামনে কী আছে আল্লাহ ভালোই জানেন। তিনি সবার কাছে তার ভায়ের সুস্থ্যতা কামনা করেছেন।

গত ২ জুলাই বিকালে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীরা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে রাজশাহী-ঢাকা মহাসড়কে পতাকা মিছিল বের করলে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা তারেককে রামদা, হাতুড়ি, লোহার পাইপ ও লাঠি দিয়ে এলোপাথাড়ি মারধর করেন। এতে তারেকের ডান পায় ও কোমরের হাড় ভেঙ্গে যায়। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। দুই দিন পর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তারেককে ছাড়পত্র দিয়ে দিলে নগরীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় চিকিৎসক তারেক ঢাকায় স্থানান্তরের পরামর্শ দেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ