ঢাকা, সোমবার 19 November 2018, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

পানামা-প্যারাডাইস পেপারসে জড়িত ৭ জনকে দুদকে তলব

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক:

পানামা ও প্যারাডাইস পেপারসের ফাঁস হওয়া নথিতে নাম থাকা সাতজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

কমিশনের একজন সিনিয়র কর্মকর্তা ইউএনবিকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পানামা পেপারসে নাম থাকা ইউনাইটেড গ্রুপের সভাপতি হাসান মাহমুদ রাজা এবং পরিচালক খন্দকার মঈনুল আহসান, আকতার মাহমুদ ও আহমেদ ইসমাইল হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১৬ জুলাই দুদকে হাজির হতে বলা হয়েছে।

অন্যদিকে, প্যারাডাইস পেপারসে নাম আসা ডব্লিউএমভি লিমিটেডের এরিকসন জোয়ান আন্দ্রেস উইলসন, সেলকন শিপিং কোম্পানির মাহতাবুর রহমান ও ইন্ট্রিডিপ গ্রুপের ফারহান ইয়াকুবুর রহমানকে অর্থপাচারের অভিযোগে ১৭ জুলাই দুদকের মুখোমুখি হতে হবে।

এর আগে গত ২০ জুন সংস্থার চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ, পানামা পেপারস ও প্যারাডাইস পেপারসের ফাঁস হওয়া নথিতে যেসব ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের নাম পাওয়া গেছে তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত কাজ ৩০ জুনের মধ্যে শেষ করার নির্দেশ দিয়েছিলেন।

তিনি রাজধানীতে দুদকের প্রধান কার্যালয়ে সংস্থার সচিব, সব মহাপরিচালক ও গোয়েন্দা বিভাগের পরিচালকদের সাথে এক জরুরি বৈঠকে এ নির্দেশ দেন।

পানামা ও প্যারাডাইসসহ অন্যান্য কর ফাঁকি সংক্রান্ত প্রতিষ্ঠানের ফাঁস হওয়া নথিতে অনেক বাংলাদেশির নাম এসেছে। বহুল আলোচিত প্যারাডাইস পেপারসের ১ কোটি ৩০ লাখের অধিক ফাঁস হওয়া নথিতে বাংলাদেশের বিতর্কিত ব্যবসায়ী মুসা বিন শমসেরের নামও রয়েছে।

ফাঁস হওয়া নথি অনুযায়ী, মুসা বিন শমসের ২০১০ সালে কর মওকুফের স্বর্গ মাল্টায় ভেনাস ওভারসিস নামে একটি কোম্পানি নিবন্ধন করেন। আরেক বাংলাদেশি শাহনাজ হুদা রাজ্জাক ১৯৯৯ ও ২০০১ সালের মধ্যে মাল্টায় ওসান আইস শিপিং ও প্রিয়ম শিপিং নামে দুটি কোম্পানির নিবন্ধন নেন।

এছাড়া, যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল কনসোর্টিয়াম অব ইনভেস্টিগেটিভ জার্নালিস্টসের (আইসিআইজে) ফাঁস করা পানামা পেপারসে বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তির নাম 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ