ঢাকা, সোমবার 9 July 2018, ২৫ আষাঢ় ১৪২৫, ২৪ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

অদম্য মেধাবীরা দেশের অমূল্য সম্পদ -শিবির সেক্রেটারি জেনারেল

গতকাল রোববার অদম্য মেধাবী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ছাত্রশিবিরের সেক্রেটারি জেনারেল মোবারক হোসাইন

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের সেক্রেটারি জেনারেল মোবারক হোসাইন বলেন, অসাধ্যকে সাধন করার উজ্জল নজির স্থাপন করেছে অদম্য মেধাবীরা। তারা প্রতিবন্ধকতা মাড়িয়ে অক্লান্ত পরিশ্রম করে দেশ সমাজ ও পরিবারের মুখ উজ্জ্বল করেছে। তারা অবহেলার পাত্র নয় বরং অদম্য মেধাবীরা দেশের অমূল্য সম্পদ।
গতকাল রোববার অদম্য মেধাবী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। নানা ধরনের প্রতিবন্ধকতা সত্ত্বেও যারা এসএসসি ও দাখিলে জিপিএ-৫ পেয়েছে, তাদের নিয়ে নাটোরে এক মিলনায়তনে রাজশাহী ও খুলনা বিভাগের ‘অদম্য মেধাবী সংবর্ধনা’ অনুষ্ঠিত হয়। কেন্দ্রীয় স্কুল সম্পাদক রাজিবুল হাসান পলাশের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক খালেদ মাহমুদ, কলেজ সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি লাবিব আব্দুল্লাহ, নাটোর জেলার সভাপতি মীর সাজিদুর রহমানসহ বিভিন্ন পর্যায়ের দায়িত্বশীল বৃন্দ।
শিবির সেক্রেটারি জেনারেল বলেন, বহু দিক দিয়ে পিছিয়ে থাকলেও মেধা সম্পদে আমরা এগিয়ে। এদেশের শিক্ষার্থীরা যে মেধাবী, এ কথা বারবার তারা বিভিন্ন পর্যায়ে ভালো ফল লাভের মাধ্যমে প্রমাণ করেছে। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য, নানা প্রতিকূলতার শিকার অদম্য মেধাবীদের জন্য পর্যাপ্ত পৃষ্ঠপোষকতার অভাব সবসময়ই থেকে গেছে। যার ফলে অনেক অদম্য মেধাবীই অসময়ে ঝরে যায়। তাদের রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতার জন্য সরকার কার্যকর উদ্যোগ নিয়ে এগিয়ে আসেনি। এই অবস্থায় আমাদের প্রত্যেককে নিজ নিজ জায়গা থেকে সচেতন হতে হবে। অদম্য মেধাবীরা যেন সঠিকভাবে এগিয়ে যেতে পারে, সেই ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে। তাহলেই বাংলাদেশ সামনের দিকে এগিয়ে যাবে।
তিনি সমবেত অদম্য মেধাবীদের উদ্দেশে বলেন, তোমরা প্রতিবন্ধকতা মাড়িয়ে পথ চলতে শিখেছো। তোমরা দেখিয়েছো, কী করে বাধা মাড়িয়ে সামনে এগুতে হয়। তোমাদের এই চলার গতি অব্যাহত থাকলে বাংলাদেশ একদিন সোনার বাংলায় পরিণত হবে। ছাত্রশিবির সবসময় তোমাদের পাশে থাকবে। আমাদের বিশ্বাস, দৃঢ়তার সাথে পথ চলে একদিন তোমরাই বাংলাদেশকে বদলে দেবে। যে পথ তোমরা পাড়ি দিয়েছো, তাতেই তৃপ্ত হবার সুযোগ নেই। দেশকে ভালোবেসে নিজেদের ক্যারিয়ার গঠনে তোমাদের আরো মনোযোগী হতে হবে।
তিনি আরো বলেন, আমাদের শিক্ষাব্যবস্থার ত্রুটির কারণেই একজন ভালো ছাত্র মাত্রই নৈতিকতার দিক থেকে দৃঢ় চরিত্রের অধিকারী, এ কথা বলা যায় না। আমাদেরকে দায়িত্ব নিয়ে ছাত্রসমাজকে বোঝাতে হবে যে, যে কোনো পরীক্ষায় প্রথম হবার সুযোগ সবার না থাকলেও ভালো মানুষ হবার সুযোগ প্রত্যেকের রয়েছে। ছাত্ররা যেন পড়ালেখার পাশাপাশি ভালো মানুষ হবার প্রতিযোগিতায় এগিয়ে থাকে, সেদিকে সবার দৃষ্টি রাখতে হবে।
অনুষ্ঠানে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত অদম্য মেধাবীদের সংবর্ধনা স্বরূপ ক্রেস্ট প্রদানের পাশাপাশি নগদ অর্থ ও বই প্রদান করা হয়।
উল্লেখ্য, ছাত্রশিবির প্রতিবছরই নানা প্রতিবন্ধকতা মাড়িয়ে যারা মেধার স্বাক্ষর রাখেন সেই অদম্য মেধাবীদের জন্য কেন্দ্র থেকে শুরু করে অঞ্চল, শাখা ও বিভিন্ন পর্যায়ে সংবর্ধনার আয়োজন করে আসছে। প্রেসবিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ