ঢাকা, বুধবার 11 July 2018, ২৭ আষাঢ় ১৪২৫, ২৬ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নন্দীগ্রামে এলএসডিতে নিম্নমানের চাল সংগ্রহের অভিযোগ

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) সংবাদদাতা: বগুড়ার নন্দীগ্রাম এলএসডিতে নিম্নমানের চাল সংগ্রহের অভিযোগ উঠেছে। সেই অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ৪ঠা জুলাই সকাল ৯টায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আখতার নন্দীগ্রাম এলএসডি পরিদর্শন করেন। তিনি পরিদর্শনকালে উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক হারুন-উর-রশিদকে বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ দেয়।
সেই সাথে নন্দীগ্রাম এলএসডির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মমতাজ বেগমের প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করেছে। জানা গেছে, চলতি মৌসুমে ৪ হাজার ৩১২ মেট্রিক টন অভ্যন্তরীণ চাল সংগ্রহ করার জন্য ২টি অটো রাইস মিল ও ২৬টি হাসকিন মিলের সাথে চুক্তিনামা হয়েছে।
এরমধ্যে ২০টি বন্ধ হাসকিন মিলও রয়েছে। গত ২৫শে মে নন্দীগ্রাম এলএসডিতে উক্ত চাল সংগ্রহ উদ্বোধন করা হয়। সে থেকে চাল সংগ্রহ করা হচ্ছে। অভিযোগ উঠে নিম্নমানের কাবিখা, টিআর, জিআর, ভিজিডি, ভিজিএফ, মোটা ও ভাঙ্গা দানার চাল সংগ্রহ করা হয়। সিন্ডিকেটের মাধ্যমে ওইসব চাল সংগ্রহ করে মোটংকের কমিশন গ্রহণ করা হচ্ছে। চাল সংগ্রহ নীতিমালা অনুযায়ী উন্নতমানের চাল সংগ্রহ করতে হবে। কিন্তু তা করা হচ্ছে না।
এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আখতার নন্দীগ্রাম এলএসডি পরিদর্শন করেছে।
এই বিষয়ে ৫ই জুলাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আখতারের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, ভিজিএফ ও ভিজিডিসহ নিম্নমানের চাল সংগ্রহের অভিযোগের প্রেক্ষিতে নন্দীগ্রাম এলএসডি পরিদর্শন করে গুণগতমানের চাল সংগ্রহ করার দিকনির্দেশনা দিয়েছি।
একই বিষয়ে উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক হারুন-উর-রশিদের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, ওই অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়নি। যথারীতিভাবে চাল সংগ্রহ করা হচ্ছে। এছাড়াও নন্দীগ্রাম এলএসডির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মমতাজ বেগমের বিরুদ্ধে কয়েকটি অভিযোগের তদন্ত চলছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ