ঢাকা, বৃহস্পতিবার 12 July 2018, ২৮ আষাঢ় ১৪২৫, ২৭ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

মাদারীপুরের ঝাউদীতে মোয়াজ্জেম বাহিনীর দৌরাত্ম্যে দিশেহারা এলাকার মানুষ

মাদারীপুর সংবাদদাতা : মাদারীপুর সদর উপজেলার ঝাউদী ইঊনিয়নে মোয়াজ্জেম মোল্লা, ফারুক মোল্লা ও কালাম কাজী গংদের বিরুদ্ধে এলাকায় ভুমিদস্যু হিসাবে জোরপুর্বক অন্যের জমি দখল, হত্যার হুমকি ও নারী নির্যাতনের অভিযোগে একাধিক মামলা থাকা সত্বেও প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে তারা। গড়ে তুলেছে সন্ত্রাসী বাহিনী, কারো কারো বিরুদ্ধে আবার মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানিও করছে তারা। যাদের ভয়ে এলাকার সাধারণ মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। এদের দ্বারা জীবননাশের আশংকায় অনেকে এলাকা ছেড়ে আত্মগোপন করে আছে।
জানা যায়, মোয়াজ্জেম মোল্লা ভূমি অফিসে নাজীর পদে চাকুরী করার সময় দুর্নীতির কারণে চাকুরীচ্যুত হয়। গত ২০ জুন এলাকার মোয়াজ্জেম মোল্লা ফারুক মোল্লা কালাম কাজী সদর উপজেলার ব্রামনদী গ্রামের শিমুলতলার জনৈক সালাম মোল্লার ৩০৩ দাগের ২০ শতাংশ জমি জোরপুর্বক দখলের চেষ্টা করে। ফলে সালাম মোল্লা বাদী হয়ে ফৌজাদারী কার্যবিধি ১৪৪ ধারামতে আদালতে একটি মামলা (পি ৬২১/১৮) করে। উক্ত মামলায় নোটিশ পেয়ে মোয়াজ্জেম মোল্লা সালাম মোল্লাকে জীবননাশের হুমকি প্রদান করায় সালাম এলাকা ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। মাদ্রায় ২০১৪ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর আজিজুল হক চৌকিদারকে সর্বহারা পাটির সদস্যরা গুলী করে খুন করলে পুলিশ তদন্ত করে মোয়াজ্জেম মোল্লার সম্পৃক্ততা পেয়ে আদালতে তার বিরদ্ধে চার্জশীট দাখিল করে। উক্ত মামলায় জেল খেটে জামিনে বের হয়েই ব্রামনদী এলাকায় একটি মেয়েকে জোরপুর্বক অপহরণ ও ধর্ষণ করে। ওই ঘটনায় মামলা (জি আর৫৬১/১৫) হলে মোয়াজ্জেম তার লোকেরা নির্যাতিতা ও তার ভাইকে হত্যার হুমকি দিয়েছে মর্মে মাদারীপুর সদর থানায় পৃথক ২টি সাধারণ ডায়েরী করা হয়। এমতাবস্থায় মোয়াজ্জেম বাহিনীর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা না নিলে আজিজুল হক চৌকিদার হত্যার মত আরো ঘটনা ঘটার আশংকা করছে এলাকার সাধারণ জনগণ।
মাদারীপুর সদর থানা ওসি কামরুল হাসান বলেন, মোয়াজ্জেম মোল্লার বিরুদ্ধে যে সব মামলা হয়েছে তা আদালতে বিচার চলছে। তবে তার বিরুদ্ধে করা ২টি সাধারণ ডায়েরীর বিষয়ে তদন্ত করে সত্যতা পাওয়া গেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ