ঢাকা, বৃহস্পতিবার 12 July 2018, ২৮ আষাঢ় ১৪২৫, ২৭ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণের দাবি

স্টাফ রিপোর্টার: আবেদনকৃত বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। গতকাল বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আয়োজিত এক মানববন্ধনে এ দাবি জানানো হয়।
মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সভাপতি মামুনুর রশীদ খোকন, মহাসচিব কামাল হোসেন, সহ-সভাপতি ফিরোজ উদ্দিন, মিজানুর রহমান, হারুন-অর-রশিদ, যুগ্ম মহাসচিব বদরুল আমিন সরকার প্রমুখ।
সমিতির সভাপতি মামুনুর রশিদ খোকনের সভাপতিত্বে সারাদেশ থেকে আগত কয়েকশ' বেসরকারি প্রাথমিক শিক্ষক কর্মসূচিতে অংশ নেন। বিনা বেতনে অনাহারে-অর্ধাহারে তারা মানবেতর জীবন যাপন করছেন। তাদের চাকরি আছে, কিন্তু বেতন নেই। 
সমিতির সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন দৈনিক সংগ্রামকে জানান, তাদের কর্মসূচিতে তিন থেকে সাড়ে তিন হাজার প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক যোগ দিয়েছেন।  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৩ সালে ২৬ হাজার ১৯৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণের ঘোষণা দেন। তবে তাদের বিদ্যালয়গুলো জাতীয়করণের সব শর্ত পূরণ করেও জাতীয়করণ থেকে বঞ্চিত হয়। জাতীয়করণকালীন ২৬ হাজার ১৯৩টি বিদ্যালয় পরিসংখ্যান করা হয়েছিল। উক্ত পরিসংখ্যান হতে আমরা বঞ্চিত।'
তারা বলেন, ‘বিগত বিএনপি জোট সরকারের আমলে সীমাহীন দুর্নীতি, দলীয়করণ ও নিয়োগ বাণিজ্যের কারণে আমরা সরকারি চাকরি না পেয়ে দীর্ঘ ১৭ বছর যাবৎ এ সকল বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত থেকে বিনা বেতনে, অনেক কষ্টের মধ্যে কোমলমতি শিশুদের শিক্ষা প্রদান করে চলেছি। বিভিন্ন সময়ে বাংলাদেশ বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির ব্যানারে উপজেলা, জেলা, বিভাগ এবং কেন্দ্রীয়ভাবে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে আসছি।’
তারা আরও বলেন, ‘জাতীয়করণের জন্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক জাতীয়করণের নিমিত্তে নির্ধারিত উপজেলা ও জেলা যাচাই-বাছাই কমিটি কর্তৃক যাচাই-বাছাই প্রক্রিয়াধীন বিদ্যালয়গুলোকে জাতীয়করণের ঘোষণা দিয়ে বঞ্চিত শিক্ষকদের মর্যাদা দেয়ার ব্যবস্থা করুন।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ