ঢাকা, শুক্রবার 13 July 2018, ২৯ আষাঢ় ১৪২৫, ২৮ শাওয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বিএনপি’র প্রশাসনের নিরপেক্ষ ভূমিকা দাবি

রাজশাহী : রাসিক মেয়র নির্বাচনে বিএনপি’র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল ও আ’লীগের প্রার্থী খায়রুজ্জামান লিটন গতকাল নগরীতে জনসংযোগ করেন -সংগ্রাম

রাজশাহী অফিস : গতকাল বৃহস্পতিবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে বিএনপি প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে প্রশাসনের নিরপেক্ষ ভূমিকা গ্রহণের দাবি জানান। তিনি অভিযোগ করেন, পুলিশের দু’জন কর্মকর্তা আওয়ামী লীগের  নেতাদের মতো আচরণ করছেন। তারা কোনো কারণ ছাড়াই বিএনপি নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করে মামলা দিচ্ছেন, কারাগারে পাঠাচ্ছেন। সিটি নির্বাচনে বিএনপিকে কোণঠাসা করতে নেতাকর্মীদের এভাবে গ্রেফতার করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন মহানগর বিএনপির সভাপতি বুলবুল।

দুপুরে মহানগর বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এই সাংবাদিক সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনুও উপস্থিত ছিলেন। তিনি বলেন, বর্তমান নির্বাচন কমিশন সরকারের আজ্ঞাবহ। কমিশন সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন পরিচালনা করতে শতভাগ ব্যর্থ হচ্ছে। এই কমিশনের অধীনে দেশের কোথাও সুষ্ঠু নির্বাচন হয়নি। রাজশাহীতে যদি নির্বাচনের পরিবেশ নষ্ট হয়, তবে এর দায়ভার নির্বাচন কমিশনকে নিতে হবে বলেও হুশিয়ারি দেন মিনু। এসময় জেলা বিএনপির সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন তপু, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলন, মহানগর যুবদলের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ সুইট, সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান রিটন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। নেতৃবৃন্দ অভিযোগ করেন, বিএনপি’র ধানের শীষের মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের পক্ষে নির্বাচনী প্রচার প্রচারণাসহ সকল কর্মকা- পরিচালনায় শুরু থেকেই বিভিন্ন ধরনের প্রশাসনিক হয়রানিমূলক গ্রেফতার ও নির্বাচন কমিশনের অসহযোগিতামূলক আচরণের শিকার হয়ে আসছে। গত ১০ জুলাই প্রতীক বরাদ্দের পূর্বেই ৯ জুলাই রাত থেকেই নৌকা মার্কার ব্যানার, ফেস্টুুন, পোস্টার সমস্ত রাজশাহী শহরে এমনভাবে টাঙ্গানো হয়েছে যা নির্বাচনী আচরণবিধির পরিপন্থি’ এবং তাদের নির্বাচনী ব্যয়কে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। এতে অন্যান্য যেকোন প্রার্থীর প্রচারণার পোস্টার, ফেস্টুুন, ব্যানার লাগানোর সুযোগ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। নির্বাচনী প্রচারণা শুরু হওয়ার পূর্ব থেকেই বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে ভীতি সঞ্চারের লক্ষ্যে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে গভীর রাতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে। যা বিগত খুলনা ও গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের পক্ষপাতমূলক নির্বাচনকে স্মরণ করিয়ে দেয়। 

ব্যবসায়ীদের মধ্যে লিটনের জনসংযোগ 

রাজশাহী অফিস : নগরীর আরডিএ মার্কেট, কাপড়পট্টি ও স্বর্ণপট্টি এলাকায় গণসংযোগ করেছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত এ গণসংযোগ করেন তিনি। বিকেলে নগরীর শহীদ কামারুজ্জামান চত্বর সংলগ্ন মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সামনে থেকে মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে নিয়ে গণসংযোগ করেন তিনি।

এ সময় বিভিন্ন দোকানে দোকানে গিয়ে লিফলেট বিতরণ ও নৌকা মার্কায় ভোট চান। এরপর সাধারণ ব্যবসায়ী সমিতির অফিসে সংক্ষিপ্ত মতবিনিময় সভায় অংশ নেন খায়রুজ্জামান লিটন। এ সময় তিনি বলেন, রাজশাহীর অনেক উন্নয়ন করার আছে। নির্বাচিত হলে সবার পরামর্শ নিয়ে কাজ করা হবে। নগরীতে শিল্প-কারখানা গড়ে লক্ষাধিক ছেলে-মেয়ের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করবো। এসিবি ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে রাজশাহীর সব ব্যবসায়ীদের স্বল্প সুধে ঋণের ব্যবস্থা করবো। তিনি আরো বলেন, নৌকা হচ্ছে স্বাধীনতার প্রতীক, নৌকা উন্নয়নের প্রতীক, রাজশাহীর উন্নয়নের জন্য নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে আমাকে নির্বাচিত করুন। নগরবাসীর কাঙ্খিত সব উন্নয়ন হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ